স্কুলশিক্ষার্থীরা টিকা পাবে ১ নভেম্বর থেকে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

আগামী ১ নভেম্বর থেকে ঢাকায় ১২-১৭ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের করোনার টিকা দেওয়ার কার্যক্রম শুরু করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক।

বৃহস্পতিবার মন্ত্রিপরিষদ বৈঠক শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা প্রতিটি জেলায় টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা নিচ্ছি। যেখানে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কক্ষ নেই, সেখানে ব্যবস্থা করার জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। আশা করি সেটাও তাড়াতাড়ি হয়ে যাবে এবং প্রতিটি জেলায় স্কুলের ছেলে-মেয়েদের টিকার দেওয়ার কার্যক্রমও শুরু হয়ে যাবে।

দেশে বর্তমানে টিকার কোন সংকট নেই উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এসময় আরো বলেন, ২৭ অক্টোবর রাত দেড়টায় চীনের সিনোফার্মের আরো ৫৫ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন এসেছে। এ নিয়ে এখন আমাদের হাতে প্রায় ২ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন মজুদ রয়েছে। আগামীতেও এভাবেই টিকা আসতেই থাকবে বলে আশা করছি। কাজেই, ডিসেম্বরের মধ্যেই টিকাদানের ক্ষেত্রে সরকারের লক্ষ্যমাত্রার ৫০ ভাগ পুরণ করা সম্ভব হবে।

১২-১৭ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের টিকা দেবার পাশাপাশি দেশের সাধারণ মানুষদের জন্যও টিকাদান কার্যক্রম চলমান থাকবে বলে এসময় মন্ত্রী জানান। এ প্রসঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আজ, কাল ও পরশু ৩ দিনে দেশের সাধারণ মানুষকে করোনার দ্বিতীয় ডোজ হিসেবে প্রায় ৮০ লাখ ভ্যাকসিন দেয়া হবে। সাধারণ মানুষের পাশাপাশি, স্কুলগামী শিশুদের জন্যও টিকাদান কার্যক্রম স্বাভাবিক নিয়মে চলমান থাকবে।