স্ত্রীকে আনতে শ্বশুর বাড়ি গিয়ে লাশ হলেন যুবক

নোয়াখালীর চাটখিলে স্ত্রীকে আনতে শ্বশুর বাড়ি গিয়ে সাইফুল ইসলাম শামিম (২৬) নামের এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে।

শামিমের শ্বশুর বাড়ির লোকজন জানায়, স্ত্রী ও তার লোকজনে অপমান সইতে না পেরে সে বিষপানে আত্মহত্যা করেছে।তবে পুলিশের ধারণা তাকে হত্যা করা হয়েছে।

রোববার (২৬ ডিসেম্বর) বিকেলে ৩নং পরকোট ইউনিয়নের রামদেবপুর গ্রামের গাইগো বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সাইফুল ইসলাম শামিম লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার দরবেশপুর ইউনিয়নের আলীপুর গ্রামের দক্ষিণ আটিয়া বাড়ির দেলোয়ার হোসেনের ছেলে।

পুলিশ মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠিয়েছে। এ ব্যাপারে নিহতের বাবা থানায় অভিযোগ করেছেন।

চাটখিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবুল খায়ের জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, আত্মহত্যার কথা বলা হলেও ধারণা করা হচ্ছে তাকে হত্যা করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

স্থানীয়রা জানান, বিয়ের পর থেকে সাইফুল তার স্ত্রীকে পরপুরুষের সঙ্গে প্রতিনিয়ত কথা বলা ও পরকীয়ায় আসক্তির প্রতিবাদ করে আসছিল। পরে তার স্ত্রী বেড়ানোর কথা বলে শ্বশুরবাড়ি গেলে রোববার তাকে আনতে যায় সাইফুল। পরে ওই বাড়ি থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

সাইফুলের চাচাতো ভাই মো. ফয়েজ বলেন, স্ত্রীকে আনতে যাওয়ার পর শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাকে বেদম মারধর করে। বিষয়টি তখন ফোনে আমাকে জানায় এবং কিছু হলে স্ত্রী ও তার পরিবারের লোকজন দায়ী থাকবে বলে বলেছিলো।

You might also like