১৫ আগস্ট ও ২১ আগস্ট এর খুনিরা একই সূত্রে গাঁথা – মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী

৫৮

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্বপরিবারে হত্যা এবং ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার ঘটনা একই সূত্রে গাঁথা বলে মন্তব্য করেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। খুনিরা ব্যক্তি মুজিবকে নয় বরং বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও স্বপ্নকে হত্যা করতে চেয়েছিল। ১৯৭৫ সালে মূল উদ্দেশ্য পূরণে ব্যর্থ হয়ে স্বাধীনতা বিরোধী সাম্প্রদায়িক অপশক্তি ২০০৪ সালে শেখ হাসিনাকে হত্যা করতে চেয়েছিল। তিনি বলেন, এসব ঘটনার পরিকল্পনাকারীদের পরিচয় বিশ্ববাসীর সামনে তুলে ধরা হবে।

আজ ঢাকায় জাতীয় প্রেস ক্লাবে মুক্তিযোদ্ধা জনতার সম্প্রীতি বাংলাদেশ আয়োজিত ‘১৫ আগস্ট ও ২১ আগস্ট খুনি চক্র একই সূত্রে গাঁথা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, জাতির পিতার আদর্শের বাহকরা রাষ্ট্রক্ষমতায় থেকে তাঁর স্বপ্ন পূরণে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। বাংলাদেশ এখন সুখী, সমৃদ্ধ এবং খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ ডিজিটাল বাংলাদেশ। সকল প্রকার সেবা এখন জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে যাচ্ছে। এখন জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সবাই মিলে জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার মাধ্যমে তাঁর রক্তের ঋণ শোধ করতে হবে।

বক্তব্যের শুরুতে মন্ত্রী ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট এবং ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহত সকল শহিদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।

মুক্তিযোদ্ধা জনতার সম্প্রীতি বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় কমিটির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী মোঃ ইব্রাহীম খলিলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জাতীয় সম্মিলিত মুক্তিযোদ্ধা ফাউন্ডেশনের মহাসচিব বীর মুক্তিযোদ্ধা জি কে বাবুল, লায়ন্স ক্লাব ঢাকার চার্টার্ড প্রেসিডেন্ট লায়ন আব্দুস সালাম চৌধুরী, বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক পরিচালক হাফিজ আহমেদ, মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা ও বাস্তবায়ন সংস্থার মানবাধিকার মুখপাত্র মহাসচিব নূরুল ইসলাম প্রমুখ।

 

নিউজ ডেস্ক / বিজয় টিভি

You might also like