৯৮ রানে শেষ হল রংপুর রাইডসের ব্যাটিং

পর্দা উঠলো বিপিএলের ষষ্ঠ আসরের। উদ্বোধনী খেলায় মুখোমুখি হয়েছে রংপুর রাইডার্স-চিটাগং ভাইকিংস। শনিবার বেলা সাড়ে ১২টায় শুরু হওয়া ম্যাচে রংপুরের বিপক্ষে টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন চিটাগং অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম।

এই ম্যাচ দিয়েই আবার বিপিএলে ফিরেছেন মোহাম্মদ আশরাফুল। নিষেধাজ্ঞার পর চিটাগং ভাইকিংসের জার্সিতে বিপিএলে ফিরেই মাঠে নেমেছেন এই ব্যাটসম্যান। টি-টোয়েন্টির এই প্রতিযোগিতায় ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে পাঁচ বছর নিষিদ্ধ হয়েছিলেন তিনি।

চ্যাম্পিয়ন হিসেবে বিপিএলের ষষ্ঠ আসরে নেমেছে রংপুর রাইডার্স। দারুণ শুরুর প্রত্যাশা থাকাটাই স্বাভাবিক। যেখানে বড় এক ধাক্কাই খেয়েছে মাশরাফি বিন মুর্তজারা। চিটাগং ভাইকিংস বোলারদের সামনে রংপুরের ব্যাটসম্যানদের আসা-যাওয়ার দৃশ্যই দেখা গেছে এবারের বিপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচে।

২০ ওভারে রংপুরের সংগ্রহ সব কয়টি উইকেট হারিয়ে ৯৮ রান সংগ্রহ করে। ৩৫ রান তুলতেই হারায় তারা ৭ উইকেট। শুরুতেই ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়া রংপুরের হয়ে রবি বোপারা একপ্রান্ত আগলে রেখে রান বাড়িয়ে নিচ্ছিলেন।

তাছাড়া সবাই ছিলেন আসা-যাওয়ায় ব্যস্ত। মাঠে আসতে না আসতেই অ্যালেক্স হেলস (০), মোহাম্মদ মিঠুন (০) রাইলি রোসো (৭), মেহেদী মারুফকে (১) প্যাভিলিয়নে ফেরত পাঠিয়েছেন চিটাগং বোলাররা। বল হাতে সবচেয়ে ভয়ঙ্কর ছিলেন রবি ফ্রাইলিঙ্ক। ৪ ওভারে ১৪ রান খরচায় তার শিকার ৪ উইকেট।

দলের বিপর্যয়ের সময় ব্যাট হাতে কিছুই করতে পারেননি মাশরাফি। সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর প্রথমবার মাঠে নেমে করেছেন তিনি ২ রান।

রংপুর রাইডার্স একাদশ: মেহেদী মারুফ, অ্যালেক্স হেলস, মোহাম্মদ মিঠুন, রাইলি রোসো, ফরহাদ রেজা, রবি বোপারা, বিনি হাওয়েল মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), নাজমুল ইসলাম, শফিউল ইসলাম, সোহাগ গাজী।

চিটাগং ভাইকিংস একাদশ: মোহাম্মদ শাহজাদ, ক্যামেরন ডেলপোর্ট, মোহাম্মদ আশরাফুল, মুশফিকুর রহিম (অধিনায়ক), মোসাদ্দেক হোসেন, সিকান্দার রাজা, রবি ফ্রাইলিঙ্ক, নাঈম হাসান, সানজামুল ইসলাম, খালেদ আহমেদ, আবু জায়েদ।

নিউজ ডেস্ক / বিজয় টিভি