কারখানায় বিস্ফোরণে দুইজন নিহতের ঘটনায় মালিক গ্রেপ্তার

ময়মনসিংহের নান্দাইলে পটকা তৈরির অবৈধ কারখানায় বিস্ফোরণে দুইজন নিহতের ঘটনায় কারখানার মালিক বোরহান উদ্দিনকে (৫০) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

শনিবার (২৩ এপ্রিল) সকালে অভিযান চালিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

সিআইডি ময়মনসিংহের বিশেষ পুলিশ সুপার মো. আনিছুর বলেন, সিআইডির ঢাকা ও ময়মনসিংহ ইউনিটের যৌথ অভিযানে বোরহানকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বিস্তারিত পরে জানানো হবে।

এর আগে গত বুধবার (২০ এপ্রিল) ভোরে উপজেলার চন্ডীপাশা ইউনিয়নের দক্ষিণ বাঁশহাটি গ্রামে বোরহান উদ্দিনের অবৈধ পটকা কারখানায় পটকা তৈরির সময় বিস্ফোরণ হয়। এ সময় বারুইগ্রাম এলাকার আবুল হোসেনের স্ত্রী নাছিমা আক্তার (৩০) ও দক্ষিণ বাঁশহাটি গ্রামের আবুল গণির স্ত্রী আফিলা খাতুন (৪৫) নিহত হন। এতে আধাপাকা বাড়িটি বিস্ফোরণে বিধ্বস্ত হয়ে যায়।

জানা গেছে, তিন ভাই মিলে অবৈধ পটকা কারখানা চালাতেন। এছাড়াও প্রতিবেশী একজন ওই কারখানার সঙ্গে জড়িত ছিল। কারখানায় বিস্ফোরণের পর বুধবার রাতেই পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করলে বিষয়টি জানা যায়। মামলায় চারজনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামা আরও ৪-৫ জনকে আসামি করা হয়। নান্দাইল থানায় মামলাটি করেন এসআই বাবলুর রহমান।

আসামিরা হলেন- বোরহান উদ্দিন (৫০), তার ভাই ফকর উদ্দিন (৬০), শাহজাহান (৪০) ও প্রতিবেশী হেলিম মিয়া (৪৫)।

পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে গত ১০ বছর ধরে অবৈধভাবে বোরহান উদ্দিনসহ তার তিন ভাই ও এক প্রতিবেশী ওই কারখানায় বিস্ফোরক দ্রব্য আতশবাজি ও পটকা তৈরি করে আসছিল। বিভিন্ন উৎসবকে কেন্দ্র করে এই কারখানা থেকে পাইকারি দামে পটকা বিক্রি করা হতো বলে জানা গেছে।

You might also like
%d bloggers like this: