কোরবানির বর্জ্য অপসারণে ১০ ঘণ্টা সময় দিলেন চসিক মেয়র

৭২

ঈদুল আযহার দিনে পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা নিয়ে এবার চসিকের ৪১টি ওর্য়াডকে ৪টি জোনে ভাগ করা হয়েছে জানিয়ে সিটি মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী বলেছেন, এবার যত্রতত্র পশু জবাই করা যাবে না। চট্টগ্রাম নগরীতে পশু কোরবানির পর বর্জ্য অপসারণের জন্য সর্বোচ্চ ১০ ঘণ্টা সময়ও বেঁধে দিয়েছেন মেয়র। বর্জ্য অপসারণে কোনো ধরনের গাফেলতি সহ্য করা হবে না বলেও পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের হুঁশিয়ার করেছেন তিনি।

রোববার নগরীর টাইগার পাসস্থ চসিক ভবনের কনফারেন্স রুমে আসন্ন পবিত্র ঈদুল আজহার বর্জ্য ব্যবস্থপনার প্রস্তুতিমূলক সভায় দিক-নির্দেশনামূলক বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় নির্দিষ্ট স্থানে ময়লা ফেলা এবং ডোর টু ডোর কর্মীদেরকে ময়লা আবর্জনা দেয়ার জন্য নগরবাসীর প্রতি অনুরোধ জানান তিনি। বর্জ্য স্টিয়ারিং কমিটির সভাপতি, কাউন্সিলর মোবারক আলীর সভাপত্বিতে এসময় উপস্থিত ছিলেন, চসিক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শহিদুল আলমসহ চসিকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

সভায় নেওয়া সিদ্ধান্ত সম্পর্কে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, প্রতি বছরের মতো এবারও বর্জ্য অপসারণ কাজের জন্য নগরীকে চারটি জোনে ভাগ করে চারজন কাউন্সিলরকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে উত্তর জোনের ১০টি ওয়ার্ডে কার্যক্রম তদারক করবেন কাউন্সিলর এসরারুল হক। দক্ষিণের ১১টি ওয়ার্ডে দায়িত্ব পালন করবেন কাউন্সিলর আবদুল বারেক। পূর্ব জোনের ১১টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমন এবং পশ্চিম জোনের ৯টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর মো. ইসমাইল দায়িত্ব পালন করবেন। আর পুরো নগরীতে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কাজের তত্ত্বাবধানের দায়িত্বে থাকবেন কাউন্সিলর মো. মোবারক আলী।

You might also like