গাংনীতে দিবালোকে তিন জনকে কুপিয়ে জখম

মেহেরপুরের গাংনীতে প্রকাশ্য দিবালোকে চাপাতি (ধারালো দেশীয় অস্ত্র) দিয়ে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে গাংনী বাজার কমিটির সাবেক সভাপতি হাফিজুর রহমান মানিক ও তার ছেলেসহ তিন জনকে।

শনিবার দুপুরে গাংনী বাজারের এসএম প্লাজায় এ ঘটনাটি ঘটে। মুমূর্ষ অবস্থায় আহতদেরকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। নৃশংস এ হামলা চালিয়ে আত্মগোপন করেছে ব্যবসায়ী হেলাল উদ্দীন, বেলাল হোসেনসহ তার লোকজন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, এসএম প্লাজার সাথী গার্মেন্টস মালিক হেলাল উদ্দীন ও তার ভাই বেলাল হোসেন এক কর্মচারীকে মারধর করে। বিষয়টির প্রতিবাদ করেন একই মার্কেটের চশমা ব্যবসায়ী ও বাজার কমিটির সাবেক সভাপতি হাজিজুর রহমান মানিক। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে হেলাল ও তার ভাই বেলাল ও ভাতিজা সাবরি হোসেনসহ তাদের লোকজন মানিকের উপরে হামলা চালায়। এ সময় তাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসে তার ছেলেসহ কয়েকজন ব্যবসায়ী। তাদেরকে কুপিয়ে জখম করা হয়।

ব্যবসায়ীদের প্রতিরোধের মুখে পালিয়ে যায় হামলাকারীরা। এসময় আহত তিন জনকে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। তবে মানিক ও তার ছেলের শারীরিক অবস্থা গুরুতর হওয়ায় কুষ্টিয়া মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে।

গাংনী হাসপাতাল সুত্রে জানা গেছে, মানিকের মুখ, হাতসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে। এতে প্রচুর রক্তক্ষরণ হচ্ছে।

এদিকে খবর পেয়ে গাংনী থানা পুলিশের একটি দল মার্কেট বন্ধ করে দেয়। মার্কেটের সামনে থাকা হামলাকারীদের একটি প্রাইভেট কার জব্দ করে পুলিশ। হামলাকারীদের আটকের জোর চেষ্টা করছে বলে জানিছেন গাংনী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বজলুর রহমান।

You might also like