গাড়ি সাইট না দেওয়ায় সাংবাদিককে মারধর, ভুয়া মেজর আটক

গাড়িকে সাইট না দেওয়ায় ভুয়া মেজর পরিচয়ে সাংবাদিককে মারধরের অভিযোগে সাদাত উল্লাহ নামে (৫৫) এক ব্যক্তিকে আটক করেছে ধানমন্ডি থানা পুলিশ।

মারধরের শিকার সাংবাদিকের নাম মাসুদুর রহমান। তিনি বেসরকারি ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের প্রতিবেদক।

শুক্রবার (১ এপ্রিল) বিকেলে রাজধানীর ধানমন্ডি এলাকার ৩ নম্বর রোডের ৫ নম্বর বাসার সামনে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী মাসুদুর রহমান জানান, আজ বিকেলে নিজের মোটরসাইকেলটি নিয়ে ধানমন্ডি ৩ নম্বর রোড ধরে একটি কাজে যাচ্ছিলেন। তিনি সড়কটির ডান পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় একটি গাড়ি এসে তার গতিরোধ করে। তিনি অপেক্ষা করতে থাকেন গাড়িটি তাকে সাইড দেবে। কিন্তু উল্টো গাড়ির মালিক নেমে তাকে গালাগালি শুরু করেন। এক পর্যায়ে গাড়িতে থাকা কয়েকজন যুবক নেমে মাসুদুর রহমানকে মারধর করে।

তিনি আরও জানান, তাকে মারধরের আগে গাড়ি থেকে নেমে হামলাকারী নিজেকে সেনাবাহিনীর মেজর পরিচয় দেন। তার সঙ্গে থাকা কয়েকজন যুবকের হাতে ওয়াকিটকি ছিল। সেই ব্যক্তি নিজেকে মেজর পরিচয় দিলে আশপাশের লোকজন তাকে হামলা থেকে রক্ষা করতে আসেনি। একপর্যায়ে মাসুদ রহমান বিষয়টির থানা পুলিশকে জানালে ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ হাজির হয়। পরে মেজর সাদাত উল্লাহ পরিচয়দানকারী সেই ব্যক্তিকে আটক করে থানায় নিয়ে যায় ধানমন্ডি থানা পুলিশ।

এ বিষয়ে ধানমন্ডি থানার অফিসার ইনচার্জ ইকরাম আলী মিয়া জানান, এ ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। ভুক্তভোগী সাংবাদিক অভিযোগ দিলে মামলা হবে। আটক ব্যক্তিকে থানায় রাখা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

এদিকে ধানমন্ডি থানা পুলিশ সূত্র জানা গেছে, আটক সাদাত উল্লাহ বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে কখনোই চাকরি করতেন না। তিনি আগে একটি বেসরকারি ব্যাংকে চাকরি করতেন। তবে তিনি বিভিন্ন সময় মানুষজনকে ভুয়া মেজর পরিচয় দিতেন।

%d bloggers like this: