চলচ্চিত্র-টেলিভিশনে এশিয়ার শীর্ষ প্রভাবশালী নারী দীপিকা পাড়ুকোন

বলিউড ও হলিউডে সমানতালে কাজ করে যাচ্ছেন বলিউডের লাস্যময়ী সুপার হিরোইন দীপিকা পাড়ুকোন। ফান ফলোয়ারও নেহাতি কম নয় তার। শুধু সিনেমাই নয়, সিনেমা ছাড়াও বলিউডের অন্যতম প্রভাবশালী অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোনের রয়েছে বড় বড় ব্র্যান্ডের সঙ্গে চুক্তি।

সম্প্রতি স্বামীর সমান পারিশ্রমিক দাবি করায় সম্প্রতি পরিচালক সঞ্জয় লীলা বানসালির ‘বৈজু বাওড়া’ সিনেমা থেকে বাদ পড়েছেন দীপিকা বলে খবর প্রকাশ পেয়েছে। এদিকে, দ্বিতীয়বারের মতো হলিউডের সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন দীপিকা।

বর্তমানে দীপিকা পাড়ুকোন শাহরুখ খানের ‘পাঠান’ সিনেমায় কাজ করছেন। আগামীতে নায়ক ও বর রণবীর সিংয়ের বিপরীতে ‘৮৩’ সিনেমায় দেখা যাবে তাকে। এছাড়া শকুন বাত্রার একটি সিনেমাতেও দেখা যাবে লাস্যময়ী এই নায়িকাকে।

নতুন খবর হল, দীপিকার সাফল্যের পালকে যুক্ত হয়েছে এশিয়ার সবচেয়ে প্রভাবশালী নারীর মুকুট। এক জরিপে জানা গেছে, চলচ্চিত্র ও টিভি ইন্ডাস্ট্রিতে এশিয়ার সবচেয়ে প্রভাবশালী নারী নির্বাচিত হয়েছেন লাস্যময়ী সুপার হিরোইন দীপিকা পাড়ুকোন।

জানা গেছে, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সব মিলিয়ে সবশেষ দীপিকা পাড়ুকোনের অনুসারী ১৩৯ মিলিয়ন। এই বিষয়টিই মূলত দীপিকাকে টিভি ও ফিল্ম বিভাগে এশিয়ার সবচেয়ে প্রভাবশালী নারী হিসেবে আলোচিত করেছে।

এদিকে, ইনস্টাগ্রাম এনগেজমেন্ট রেটেও শীর্ষে রয়েছেন দীপিকা। শুধু তাই নয়, ইমপ্রেশন পার টুইট, তিন মিলিয়ন গুগল সার্চসহ মোস্ট মিডিয়া মেনশন ক্যাটাগরিতে শীর্ষে রয়েছেন দীপিকা। লেভিস, লাইকি, টিসোট ও চপার্ডের মতো ব্র্যান্ডের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন দীপিকা।