চীন-রাশিয়ার সম্পর্ক বিশ্ব শান্তির জন্য হুমকি: তাইওয়ান

চীন-রাশিয়ার সম্পর্ককে বিশ্ব শান্তির জন্য হুমকি হিসেবে দেখছে তাইওয়ানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে অবশ্যই ‘স্বৈরাচারবাদীদের সম্প্রসারণ’ প্রতিরোধ করতে হবে বলে আওয়াজ তুলেছে তাইপে। ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপির বরাতে শুক্রবার এক প্রতিবেদন এ তথ্য জানিয়েছে দ্য হিন্দু।

ইউক্রেনের রাশিয়ার আক্রমণ শুরুর পর বৃহস্পতিবার প্রথমবার রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে মুখোমুখি বৈঠক করেছেন চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। উজবেকিস্তানের সামারখন্দে সাংহাই কোঅপারেশন অর্গানাইজেশনের (এসসিও)-এর সম্মেলনের রুদ্ধদ্বার দ্বিপক্ষীয় বৈঠকের আগে এই দুই নেতার বৈঠক হয়। পুতিনকে ‘প্রিয় ও পুরনো বন্ধু’ আখ্যায়িত করে শি বলেন, মহাশক্তি হিসেবে ভূমিকা রাখার ক্ষেত্রে রাশিয়ার সঙ্গে কাজ করতে আগ্রহী চীন। সামাজিক অস্থিরতায় ঢেকে যাওয়া বিশ্বে স্থিতিশীলতা ও ইতিবাচক প্রচেষ্টার জন্য পথপ্রদর্শক ভূমিকা পালন করতেও আগ্রহী।

এরপরই বিবৃতিতে তাইওয়ানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দুই দেশের সম্পর্ককে পুরো দুনিয়ার শান্তির জন্য হুমকি বলে বর্ণনা করেছে। শি জিনপিংয়ের সঙ্গে সাক্ষাতের সময় তাইওয়ানের ইস্যুতে চীনের প্রতি সমর্থন পুন্যর্বক্ত করেছেন পুতিন।

ইউক্রেনে রাশিয়ার সামরিক হামলার মতো চীনও তাইওয়ানে আক্রমণ করে বসতে পারে, এমনটাই আশঙ্কা তাইপের। এমনকি চীনের সামরিক বিমান প্রায় সময় তাইওয়ানের আকাশ প্রতিরক্ষা জোনে অনুপ্রবেশ করে।

এই পরিস্থিতিতে তাইওয়ানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, ‘আমাদের দেশের সার্বভৌমত্বকে অবমাননা করে আন্তর্জাতিক ভেন্যুতে মিথ্যা বিবৃতি দেওয়ার জন্য চীনের কমিউনিস্ট পার্টির স্বৈরাচারী সম্প্রসারণবাদী সরকারকে অনুসরণ করায় রাশিয়ার তীব্র নিন্দা করছে তাইওয়ান।

চীন তাইওয়ানকে নিজেদের বিচ্ছিন্ন একটি দ্বীপ বিবেচনা করে আসছে। অন্যদিকে তাইওয়ান নিজেদের স্বাধীন রাষ্ট্র বলে দাবি করে আসছে।

You might also like