চুয়াডাঙ্গার জীবননগরে নদী ভ্রমণ কাল হলো স্কুলছাত্রীর 

দুই বান্ধবী ভেলায় চড়ে ভৈরব নদী ভ্রমণে বের হয়েছিলো। কিন্তু তাদের সেই নদী ভ্রমণ আনন্দের হয়নি। মুহূর্তে তা বিষাদে পরিণত হয়। ভেলা ডুবে যায়। পরে তাজনুর খাতুনকে (১৩) জীবিত উদ্ধার করা গেলেও নিখোঁজ হয় তার সঙ্গী মাহফুজা খাতুন (১৩)।

অনেক খোঁজাখুজির পর রোববার রাত সাড়ে ৮টার দিকে মরদেহ ভেসে উঠলে মাহফুজার মরদেহ উদ্ধার করে গ্রামবাসী।  জেলার জীবননগর উপজেলার কাশিপুর গ্রামে এ হৃদয় বিদারক ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, জীবননগর উপজেলার  কাশিপুর গ্রামের মালয়েশিয়া প্রবাসী মাসুম আলীর মেয়ে মাহফুজা ও ফার্ণিচার ব্যবসায়ী জসিম উদ্দিনের মেয়ে তাজনুর বান্ধবী। তারা দুই জনই কাশিপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির ছাত্রী। তাদের বাড়ির পাদদেশ দিয়ে ভৈরব নদী বয়ে গেছে।

বিকেলে তারা ভেলা নিয়ে নদী ভ্রমণে বেড়িয়ে পড়ে। একপর্যায়ে  পানির স্রোত বেশী থাকায় তাদের ভেলাটি উল্টে যায়। এ সময় এলাকাবাসী তাজনুরকে জীবিত উদ্ধার করতে পারলেও নিখোঁজ হয় মাহফুজা। খবর দেয়া হয় জীবননগর ফায়ার সার্ভিসে। কিন্তু এখানকার ফায়ার সার্ভিসে ডুবুরী দল না থাকায় উদ্ধার অভিযানের জন্য খুলনা ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলকে তলব করা হয়। খুলনা থেকে ডুবুরী আসার পূর্বেই মাহফুজার মরদেহ নদের পানিতে ভেসে উঠলে এলাকাবাসী তার মরদেহ উদ্ধার করে।

নিউজ ডেস্ক/বিজয় টিভি