জীবন বাঁচাতে পাকিস্তানে আশ্রয় নিচ্ছে আফগান সেনারা

আফগানিস্তানের অধিকাংশ এলাকার নিয়ন্ত্রণও এখন তালেবানের হাতে। গত বিশ বছর ধরে চলা মিশন শেষে সব আন্তর্জাতিক সেনা আফগানিস্তান ছাড়ায় তালেবানের শক্তি আরও বেড়েছে।

তালেবানের হাতে সীমান্ত এলাকার সামরিক ফাঁড়ির নিয়ন্ত্রণ হারানোর পর পালিয়ে গিয়ে প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানের আশ্রয় নিয়েছে দেশটির সরকারি বাহিনীর ৪৬ জন সেনা। সোমবার এ তথ্য জানিয়েছে পাকিস্তান সেনাবাহিনী।

গত এপ্রিলে আফগানিস্তান থেকে সেপ্টেম্বরের মধ্যে সব বিদেশি সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেয় যুক্তরাষ্ট্র। এর পর থেকেই দেশটিতে তালেবান হামলা বেড়েই চলেছে। ওয়াশিংটন বলেছে, তারা তালেবান হামলার মুখে থাকা আফগান বাহিনীকে বিমান হামলা চালিয়ে সহায়তা করবে।

তালেবানের হামলা বাড়তে থাকায় সীমান্ত লাগোয়া প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তান, তাজিকিস্তান ও ইরান সীমান্ত পাড়ি দিয়ে আশ্রয় নিয়েছে শত শত আফগান সেনা।

সোমবার পাকিস্তান সেনাবাহিনী এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, সামরিক বাহিনীর প্রতিষ্ঠিত নিয়ম অনুযায়ী আফগান সেনাদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সেবা, পর্যাপ্ত খাবার এবং তাদের থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে আমাদের পক্ষ থেকে।

পাকিস্তানের সেনাবাহিনী জানিয়েছে, যেসব আফগান সেনা আশ্রয় নিয়েছেন তাদেরকে প্রক্রিয়ামাফিক আবার আফগানিস্তানে ফেরত পাঠানো হবে। এর আগেও আশ্রয় নেয়া ৩৫ সেনার আরেকটি দলকে ফেরত পাঠানো হয়েছিল।

সম্প্রতি কাতারের দোহায় আফগান সরকার এবং তালেবানের মধ্যে শান্তি আলোচনা হলেও তাতে খুব একটা অগ্রগতির লক্ষণ দেখা যায়নি বলেই মত দিয়েছেন কূটনীতিকরা।

You might also like