তুরাগে বিস্ফোরণ: দগ্ধ ৮ জনের সবাই মারা গেলেন

রাজধানীর তুরাগে ভাঙারির দোকানে বিস্ফোরণ ও পাশের রিকশার গ্যারেজের অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধ হয়ে আহত অবস্থায় চিকিৎসাধীন মো. শাহীন (২৬) মারা গেছেন। আইসিইউ-তে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার (১২ আগস্ট) দিবাগত রাতে মারা যান তিনি। এ নিয়ে এ দুর্ঘটনায় দগ্ধ মোট ৮ জনের সবাই একে একে মারা গেলেন।

এ তথ্য নিশ্চিত করে ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া বলেন, গত (৬ আগস্ট) থেকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউট চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। মারা যাওয়া শাহীন পেশায় রিকশাচালক ছিলেন। তার শরীরের ৫০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল।

শাহীনের মরদেহটি মর্গে রাখা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

গত ৬ আগস্ট বেলা ১২টার দিকে রাজধানীর তুরাগ থানা এলাকার কামারপাড়া রাজারবাড়ি পুকুরপাড় এলাকায় একটি রিকশা গ্যারেজ সংলগ্ন ভাঙারি দোকানে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। পরে পাশের রিকশার গ্যারেজেও আগুন ছড়িয়ে পড়ে। এতে দগ্ধ আট জন।

ঘটনার দিনই তাদের উদ্ধার করে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক ইনস্টিটিউটে নিয়ে আসা হয়।

এর আগে, শফিকুল ইসলাম (৩২), আলামিন (৩০), মাসুম আলী (৩৫), মিজানুর রহমান (৩৫), নূর হোসেন (৬০), মাজারুল ইসলাম (৪৫) এবং মো. আলম (২৩) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। নিহতদের বেশিরভাগই রিকশাচালক।

You might also like