ত্রাণ কার্যক্রমে ৫৪ কোটি টাকার পরিকল্পনা রেড ক্রিসেন্টের

চলমান বন্যায় ত্রাণ কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ৫৪ কোটি টাকার পরিকল্পনা নিয়েছে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি। প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, আন্তর্জাতিক ফেডারেশন অব রেড ক্রস অ্যান্ড রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটিজের (আইএফআরসি) মাধ্যমে সব রেড ক্রস অ্যান্ড রেড ক্রিসেন্ট মুভমেন্ট পার্টনারদের কাছে উক্ত সহায়তার জন্য আবেদন করা হয়েছে। ত্রাণ কার্যক্রমের মধ্যে- খাদ্য, পানি ও পয়ঃনিষ্কাশন এবং ঘর মেরামত সহায়তা অন্যতম।

এছাড়াও সোসাইটির স্থানীয় প্রতিষ্ঠান ও দানশীল ব্যক্তিদের কাছে এ চলমান ত্রাণ কার্যক্রম বাস্তবায়নে সহায়তার জন্য আহ্বান করেছে।

বুধবার (২২ জুন) রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির কমিউনিকেশনস বিভাগ থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, বন্যা দুর্গতদের সহায়তা দিতে এর মধ্যে ১৫ হাজার পানি বিশুদ্ধিকরণ ট্যাবলেট, ৭ হাজার ২০০ প্যাকেট শুকনো খাবার, ১২শ জেরিকেন, ১ হাজার ডিগনিটি কিট, ৫শ হাইজিন পার্সেল, ৫০টি লাইফ জ্যাকেট পাঠানো হয়েছে। সিলেট ও সুনামগঞ্জে ৩টি ভ্রাম্যমাণ পানি বিশুদ্ধিকরণ ইউনিটের মাধ্যমে বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ শুরু করেছে যার মাধ্যমে প্রতিদিন ২০ হাজার লিটার বিশুদ্ধ পানি বিতরণ সম্ভব হবে। তাছাড়াও জরুরি পরিস্থিতি মোকাবিলায় উদ্ধারকাজে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সঙ্গে সরাসরি কাজ করছে সোসাইটির স্বেচ্ছাসেবকরা।

এছাড়াও বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি আইএফআরসির সহাযোগিতায় এরমধ্যে ৭৫ হাজার লিটার বিশুদ্ধ পানি, ৬ হাজারের অধিক মানুষকে শুকনো খাবার, ১ হাজার ৬৬৫ জেরিকেন এবং ১ হাজার হাইজিন পার্সেল বিতরণ সম্পন্ন করেছে। সেই সঙ্গে সোসাইটির পক্ষ থেকে ৪টি মেডিকেল ক্যাম্পের মাধ্যমে বিনামূল্যে বন্যার্তদের চিকিৎসাসেবা দেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সিলেট অঞ্চলে স্মরণকালের ভয়াবহ বন্যায় পানিবন্দি দুর্গত মানুষকে সহায়তা দিতে কাজ করছে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ৫শর বেশি স্বেচ্ছাসেবক।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মো. নূর-উর-রহমান জানিয়েছেন, বন্যাকবলিত দুর্গত মানুষের পাশে দাঁড়াতে রেড ক্রিসেন্ট সরকারের সঙ্গে একাত্ম হয়ে কাজ করছে। এ মুহূর্তে আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে ত্রাণ সহায়তা দেয়া হচ্ছে। সেই সঙ্গে বন্যায় সর্বাধিক ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে নগদ অর্থ সহায়তা দেওয়ার জন্যও কাজ করছে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি।

You might also like