দুর্নীতি মামলায় দোষী সাব্যস্ত ডিআইজি মিজান চাকরি থেকে বরখাস্ত

দুর্নীতি মামলায় দোষী সাব্যস্ত অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ডিআইজি) মিজানকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৩ নভেম্বর) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. আমিনুল ইসলাম খান স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ আদেশ জারি করা হয়।

এতে বলা হয়েছে, ‘যেহেতু, জনাব মো. মিজানুর রহমান, পিপিএম-সেবা (বিপি-৬৬৯১০০০০২৫), অতিরিক্ত পুলিশের কমিশনার (ডিআইজি), ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ, ঢাকা (বর্তমান সাময়িক বরখাস্ত এবং পুলিশ অধিদপ্তর সংযুক্ত) এর বিরুদ্ধে গত ২৪ জুন, ২০১৯ তারিখে দুর্নীতি দমন কমিশন কর্তৃক রুজুকৃত দুদক,সজেকা,ঢাকা-১ এর ০১ নং মামলায় তদন্ত শেষে দুর্নীতি দমন কমিশন আইন, ২০০৪ এর ২৬ (২) ও (২৭) ধারা, মানিলন্ডারিং প্রনতিরোধ আইন,২০১২ এর ৪ (২) ও (৩) ধারাসহ এবং দন্ডবিধির ১০৯ ধারায় বিভাগ, সজেকা, ঢাকা-১ গত ৩০ অক্টোবর, ২০২০ তারিখে ৮ নং চার্জশিট দাখিল করা হয়। মহামান্য সুপ্রিম কোর্ট তাকে তিন বছরের কারাদণ্ড প্রদান করেন।’

সাময়িক বরখাস্ত হওয়া ও দুর্নীতির মামলায় দোষী সাব্যস্ত হয়ে কারাগারে থাকা ডিআইজি মিজানুর রহমানকে সরকারি চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের ২৩ ফেব্রুয়ারি ঘুস নেওয়ার মামলায় ডিআইজি মিজানুর রহমানকে তিনবছরের কারাদণ্ড দেন আদালত। ৪০ লাখ টাকা ঘুস কেলেঙ্কারির অভিযোগে ২০৯ সালের ১৬ জুলাই দুদকের ঢাকা সমন্বিত জেলা কার্যালয়-১ এ পরিচালক শেখ মো. ফানাফিল্লাহ বাদী হয়ে মামলা করেছিলেন।

ডিআইজি মিজান অস্ত্রের মুখে এক নারীকে তুলে নিয়ে বিয়ে করাসহ নানা অপকর্মের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ থেকে সাময়িক বরখাস্ত হন। তখন তিনি ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। পরে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করে পুলিশ সদরদপ্তরে সংযুক্ত করা হয়। ২০১৯ সালের ২জুন মিজানকে গ্রেপ্তার করে আদালত তোলা হয়। এসময় আদালত তাকে কারাগারে পাঠান।

You might also like