দ্বিতীয় দিনের মতো দেশজুড়ে চলছে ট্রাক মালিক-শ্রমিকদের কর্মবিরতির

দ্বিতীয় দিনের মতো দেশজুড়ে চলছে ট্রাক মালিক-শ্রমিকদের কর্মবিরতি। ১৫ দফা দাবিতে সারা দেশে ৭২ ঘণ্টার কর্মবিরতির দ্বিতীয় দিন পালন করছে ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ। কর্মবিরতির কারণে চট্টগ্রাম বন্দর থেকে পণ্য পরিবহন বন্ধ রয়েছে।

বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) এ কর্মবিরতিতে চট্টগ্রাম বন্দরে অচলাবস্থা দেখা দিয়েছে। বেনাপোল বন্দরে আটকে আছে শত শত পণ্যবাহী ট্রাক।

বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ ট্রাকচালক শ্রমিক ফেডারেশনের জেনারেল সেক্রেটারি ওয়াজি উল্লাহ বলেন, ১৫ দফা দাবিতে আমাদের দ্বিতীয় দিনের মতো কর্মবিরতি চলছে। কর্মবিরতিতে সারাদেশে পণ্য পরিবহন বন্ধ রয়েছে। চট্টগ্রাম বন্দরেও পণ্য নিয়ে কোনো গাড়ি প্রবেশ করছে না। বন্দর থেকেও পণ্য নিয়ে গাড়ি বের হচ্ছে না। আমাদের দাবি না মানা পর্যন্ত ৭২ ঘণ্টার যে কর্মবিরতি শুরু হয়েছে তা চলবে।

তিনি বলেন, আজকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে একটি বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। আশা করছি সেখানে ফলপ্রসূ সিদ্ধান্ত আসবে।

এদিকে কর্মবিরতিতে সাতক্ষীরা ভোমরা স্থলবন্দরে কোনো প্রভাব পড়েনি। ভোমরা বন্দরে আমদানি- রপ্তানি কার্যক্রম স্বাভাবিক গতিতে চলছে। লোড আনলোড ও পণ্যপরিবহন চলছে স্বাভাবিকভাবেই। তবে নিশ্চিত ক্ষতির মুখে না পড়ে যায় এই উৎকণ্ঠা রয়েছে আমদানিকারক প্রতিনিধিদের মধ্যে। আর উদ্বেগের মধ্যে রয়েছেন সিঅ্যান্ডএফ কর্মচারীসহ দিন আনা দিন খাওয়া বন্দরের ১০ হাজার শ্রমিকদের মধ্যেও।

কর্মবিরতিতে ব্যাহত হচ্ছে সুলভমূল্যে টিসিবির পণ্য বিক্রিও। এদিকে এই সংকটের দ্রুত সমাধান না হলে দীর্ঘমেয়াদে রপ্তানিতে নেতিবাচক প্রভাব পড়ার শঙ্কা জানিয়েছে বিজিএমইএও।