নারীর অগ্রগতিতে দক্ষিণ এশিয়ায় শীর্ষে বাংলাদেশ : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

বর্তমান সরকার সকল ক্ষেত্রে নারীর অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য কাজ করছে। শিক্ষা, রাজনীতি, কর্মসংস্থানে নারীর অগ্রগতিতে বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ায় শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে আব্দুল মোমেন।

আজ বিকেলে রাজধানীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বেইজিং ঘোষণা ও কর্মপরিকল্পনার ২৫ বছর পূর্তি উদযাপন উপলক্ষে সমাবেশ ও সাংষ্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন।

বেইজিং ঘোষণা ও কর্মপরিকল্পনার ২৫ বছর পূর্তি উদযাপন কমিটির উদ্যোগে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। কমিটির সদস্য সংগঠনগুলো হচ্ছে- আইন ও সালিশ কেন্দ্র, ব্র্যাক, ব্লাস্ট, মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন, অভিযান, নারী প্রগতি সংঘ, জাগো ফাউন্ডেশন, প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল, এনগেজ মেন এন্ড বয়েজ নেটওয়ার্ক, ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র, ঢাকা ওয়াইডব্লিউসিএ, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ এবং টার্নিং পয়েন্ট।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বেইজিং ঘোষণা এবং কর্মপরিকল্পনা নারীর ক্ষমতায়নের জন্য স্বপ্নদর্শী এজেন্ডা। এটির মাধ্যমে সমগ্র বিশ্বের সরকার সমূহ ঐক্যমতে আসে জেন্ডার দৃষ্টিভঙ্গির চর্চা এবং জেন্ডার সমতা প্রতিষ্ঠার জন্য।

সমাবেশ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) ডা. ফওজিয়া মোসলেম। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউএন উইমেন বাংলাদেশ এর কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টেটিভ শোকো ইশিকাওয়া, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক এবং জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান ড. মিজানুর রহমান। অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজ কল্যাণ ইনস্টিটিউটের সহকারী অধ্যাপক তৌহিদুল হক।

সভাপতির বক্তব্যে ডা. ফওজিয়া মোসলেম বলেন, ‘নারীর প্রতি সহিংসতাকে বৈশ্বিকভাবে আন্তর্জাতিক গণহত্যার শামিল বলে উল্লেখ করা হয়েছে । এটি নারীর অর্জনকে ম্লান করে দিচ্ছে।’ তিনি নারী নীতি বাস্তবায়নে সরকার এবং বেসরকারী প্রতিষ্ঠানকে সমন্বিত কার্যক্রম গ্রহণের আহবান জানান।

অনলাইন নিউজ ডেস্ক/বিজয় টিভি

You might also like