নড়াইলে আ’লীগ নেতার বিরুদ্ধে মাদ্রাসা সুপারকে মারধরের অভিযোগ

৩২১

সাজিদুল ইসলাম শোভনঃ নড়াইলের কালিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মল্লিক মানিরুল ইসলামের বিরুদ্ধে বড়নাল দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওলানা শফিকুল ইসলামকে (৫১) বেধড়ক মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় বুধবার (৮ আগস্ট) দুপুরে শফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে কালিয়া থানায় মানিরুল ইসলামসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। এছাড়া আরো কয়েকজনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে।

মাদ্রাসা সুপার শফিকুল ইসলাম বলেন, নিয়মানুযায়ী গত ২ আগস্ট কালিয়া উপজেলা ইউএনওকে সভাপতি করে বড়নাল দাখিল মাদরাসা পরিচালনা কমিটি গঠন করা হয়। কিন্তু মানিরুল ইসলাম বিষয়টি মেনে নিতে পারেননি। এরপর থেকে মানিরুল ইসলাম আমাকে বিভিন্ন হুমকি দিয়ে আসছে। তাকে (মানিরুল) সভাপতি করতে হবে বলে অব্যাহত চাপ দিতে থাকেন।

এক পর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে গত মঙ্গলবার দুপুরে ও পরবর্তীতে রাত সাড়ে ৯টার সময় মানিরুলসহ তার লোকজন মাদ্রাসায় এসে রেজুলেশন খাতা পরিবর্তন করে তাকে (মানিরুল) সভাপতি করতে চাপ দেয়। মানিরুলসহ তার সঙ্গে থাকা সাইজুর ও খাইরুলও কিলঘুষি মারতে মারতে টেনে হিঁচড়ে বাইরে নিয়ে যান। প্রাণে মেরে ফেলারও হুমকি দেন তারা। আমার গায়ের পোশাক ছিঁড়ে ফেলে। রেজুলেশন খাতা ছিঁড়ে ফেলে মাদরাসার সভাপতি হিসেবে কালিয়া ইউএনওর নাম বাদ দিয়ে নতুন করে রেজুলেশন লিখে সংশ্লিষ্টদের স্বাক্ষর প্রতিস্থাপন করে মানিরুল ইসলাম সভাপতি হওয়ার চেষ্টা করেন।

কালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ শমসের আলী বলেন, এ ঘটনার পর থেকে সুপারসহ মাদ্রাসার সার্বিক নিরাপত্তার জন্য পুলিশি প্রহরার ব্যবস্থা করা হয়েছে। অভিযুক্ত মানিরুল ইসলাম পলাতক রয়েছেন। এদিকে, মানিরুল ইসলামকে মোবাইলে ফোনেও পাওয়া যাচ্ছে না।

 

নিউজ ডেস্ক / বিজয় টিভি

You might also like