প্রচার-প্রচারণায় জমে উঠেছে টাঙ্গাইল পৌরসভা নির্বাচন

৩০

শেষ মুহূর্তের প্রচার-প্রচারণায় জমে উঠেছে টাঙ্গাইল পৌরসভা নির্বাচন। প্রতিদিন ভোর থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত  প্রার্থী ও তাদের সমর্থকরা লিফলেট নিয়ে ঘুরছেন ভোটারদের দ্বারে-দ্বারে। দিচ্ছেন নানা ধরনের প্রতিশ্রুতি। এদিকে, নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রার্থীরা পরস্পরের বিরুদ্ধে করছেন আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ। তবে, ভোটাররা জানিয়েছেন, জনবান্ধব পৌর পিতা বেছে নেবেন তারা। অন্যদিকে, নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ করতে সর্বাত্মক প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে নির্বাচন অফিস।

তৃতীয় ধাপে, ৩০ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হচ্ছে টাঙ্গাইল পৌরসভা নির্বাচন। প্রচার-প্রচারণার শেষ মুহূর্তে ভোটারদের দ্বারে-দ্বারে ছুটছেন প্রার্থী-সমর্থরা। নানা প্রতিশ্রুতিতে ভোটারদের মন জয় করার চেষ্টা করছেন তারা।

নির্বাচনে ৩ জন মেয়র পদপ্রার্থী রয়েছেন। তারা হচ্ছেন- আওয়ামী লীগ মনোনীত এসএম সিরাজুল হক আলমগীর, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মাহমুদুল হক সানু ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত প্রার্থী মো. আব্দুল কাদের।

এদিকে, নির্বাচিত হতে পারলে টাঙ্গাইল পৌরবাসীর কল্যাণ এবং শান্তির জন্য সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ, মাদকমুক্ত আলোকিত ও পরিকল্পিত পৌরসভা প্রতিষ্ঠা করবেন বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী। অন্যদিকে, নির্বাচনে কোনো প্রকার কারচুপি করা না হলে বিপুল ভোটে বিজয়ী হবার আশাবাদ ব্যক্ত করেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী।

তবে, ভোটাররা জানিয়েছেন, উচ্চ শিক্ষিত, নিরহঙ্কার ও সাদা মনের একজন মানুষকে তারা পৌর পিতা হিসেবে নির্বাচিত করবেন।

অন্যদিকে, নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ করতে সর্বাত্মক প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন এ নির্বাচনী কর্মকর্তা।

টাঙ্গাইল পৌরসভার ১৮টি ওয়ার্ডে ৩৪ জন সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর ও ১শ জন সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। পৌরসভার মোট ভোটার এক লাখ ২৪ হাজার ৪২৫ জন। এর মধ্যে ৬০ হাজার ৩৩৪ জন পুরুষ ও ৬৪ হাজার ৯১ জন নারী।

You might also like