প্রতিশ্রুতির ৮ মাসের মাথায় দেশের সবচেয়ে বড় করোনা হাসপাতালের কার্যক্রম শুরু : মেয়র আতিকুল

৭৬

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর দিকনির্দেশনায় প্রতিশ্রুতির মাত্র ৮ মাসের মাথায় শুরু হলো দেশের সবচেয়ে বড় ১ হাজার শয্যাবিশিষ্ট ডিএনসিসি কোভিড-১৯ ডেডিকেটেড হাসপাতালে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা সেবা কার্যক্রম।

তিনি বলেন, নগরবাসীর স্বাস্থ্য সেবার জন্যই মহাখালীর এই ভবনটিকে হাসপাতালে রূপান্তর করা হয়েছে।

আজ রোববার রাজধানীর মহাখালীতে দেশের সবচেয়ে বড় এ হাসপাতালে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ডিএনসিসির মেয়র এসব কথা বলেন।

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক এমপি, ডিএনসিসির মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলামকে সাথে নিয়ে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।

ডিএনসিসির মেয়র বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সার্বিক দিকনির্দেশনার ফলেই এত অল্প সময়ের মধ্যে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় এই “ডিএনসিসি ডেডিকেটেড কোভিড-১৯ হাসপাতাল” এ করোনা ভাইরাস তথা কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা সেবা কার্যক্রম চালু করা সম্ভব হয়েছে। তিনি নিজেই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সরকারী হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করে সুস্থ্য হয়েছেন উল্লেখ করে সরকারী হাসপাতালের সেবা কার্যক্রমের প্রশংসা করেন এবং সর্বস্তরের জনপ্রতিধিদেরকে দেশের অভ্যন্তরে সরকারী হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা গ্রহণের জন্য উৎসাহিত করেন।

ডিএনসিসির মেয়র করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধকল্পে সকলকে সরকারের নির্দেশনাসহ স্বাস্থ্য বিধিসমূহ যথাযথভাবে মেনে চলার পরামর্শ দেন।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৯ আগস্ট করোনা আইসোলেশন সেন্টার পরিদর্শনে গিয়ে ডিএনসিসি মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম মহাখালীর এই মার্কেটটিকে হাসপাতালে রূপান্তরের ঘোষণা দিয়েছিলেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব লোকমান হোসেন মিয়া উপস্থিত ছিলেন।

You might also like