প্রাথমিকে দিনে দুই শ্রেণির ক্লাস

করোনা সংক্রমণ রোধে দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রায় দেড় বছর বন্ধ। পরিস্থিতি বিবেচনায় আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে শ্রেণিকক্ষে শুরু হচ্ছে পাঠদান। প্রাথমিকভাবে স্কুল ও কলেজ চালু হচ্ছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার পর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রতিদিন দুই শ্রেণির ক্লাস নেওয়ার রুটিন তৈরি করেছে শিক্ষা অধিদপ্তর।

শুক্রবার (১০ সেপ্টেম্বর) অধিদপ্তর সূত্রে এসব জানা গেছে। চূড়ান্ত হয়ে গেলে আগামী সপ্তাহে এ রুটিন অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।

রুটিনে বলা হয়েছে, প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রতিদিন দুটি শ্রেণির শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন বিষয়ে ক্লাস করানো হবে। ক্লাস চলবে সকাল ৯টা ৩০ মিনিটে শুরু হয়ে বিকেল ৩টা ৪৫ মিনিট পর্যন্ত। সকাল শিফটের শুরুতে ও দুপুর শিফটের শুরুতে দশ মিনিট করে কোভিড-১৯ স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কে সচেতনতামূলক আলোচনা করতে শিক্ষকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি মেনে শ্রেণিকক্ষে শিক্ষার্থীদের প্রবেশ করতে বলা হয়েছে।

প্রথম সপ্তাহে উল্লিখিত রুটিন অনুযায়ী চতুর্থ শ্রেণির বাংলা, গণিত ও ইংরেজি বিষয়ে পাঠদান পরিচালনা করতে হবে। পরবর্তী সপ্তাহে বাংলা, গণিত ও ইংরেজি বিষয়ের পরিবর্তে যথাক্রমে বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়, প্রাথমিক বিজ্ঞান এবং ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা বিষয়ে পাঠদান কার্যক্রম চলবে।

কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাঠদান কার্যক্র চালু করতে নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে। নির্দেশনা অনুযায়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শ্রেণি পাঠদান চলবে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, সপ্তাহের প্রত্যেক দিনই পঞ্চম শ্রেণির পাঠদান চলবে বিদ্যালয়ে। পঞ্চম শ্রেণির সঙ্গে সপ্তাহের প্রথম দিন শনিবার চতুর্থ শ্রেণি, রবিবার তৃতীয় শ্রেণি, সোমবার দ্বিতীয় শ্রেণি, মঙ্গলবার প্রথম শ্রেণির পাঠদান করা হবে। সপ্তাহের বাকী দুদিন  বুধ ও বৃহস্পতিবার শুধু পঞ্চম শ্রেণির পাঠদান চলবে।