প্রেসক্লাবে আত্মহত্যার চেষ্টাকারী সেই ব্যক্তির মৃত্যু

১০১

জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে নিজের শরীরে আগুন দেওয়া কবি-ব্যবসায়ী মো. আনিসুর রহমান গাজী (৫০) লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় মারা গেছেন।

মঙ্গলবার সকাল সোয়া ৬টায় শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আইসিইউতে লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় মারা যান।

বার্ন ইনস্টিটিউটের সমন্বয়কারী ডা. সামন্ত লাল সেন মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি আইসিইউতে লাইফ সাপোর্টে ছিলেন। তার শরীরের ৯০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল।

এর আগে অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় সোমবার (৪ জুলাই) সন্ধ্যায় হাসপাতালে ভর্তি করার পরপরই তাকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়।

প্রসঙ্গত, ৪ জুলাই জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে নিজের শরীরে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন মো. আনিসুর রহমান গাজী। পরে তকে উদ্ধার করে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর তার অবস্থার অবনতি হলে ওই ইনস্টিটিউটের আইসিইউতে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়।

এ ঘটনায় মো. আলী নামে এক ব্যক্তি জানান, আনিস গত ২ মাস আগে একটি কোম্পানির কাছে ১ কোটি ২৬ লাখ টাকা পাওনার দাবি নিয়ে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে একটি মানববন্ধন করেছিলেন। আজ হঠাৎ প্রেস ক্লাবের সামনে এসে নিজের শরীরে আগুন দেন।

এদিকে দগ্ধ গাজী আনিসের পরিচিত তুহিন নামে এক ব্যক্তি মোবাইলের মাধ্যমে জানান, ব্যবসার জন্য বেশ কয়েক বছর আগে একটি কোম্পানির মালিকের স্ত্রীকে এক কোটি ২৬ লাখ টাকা দেন আনিস। এই টাকা ফিরে পাওয়ার জন্য তিনি জাতীয় প্রেসক্লাবের তিনতলায় সংবাদ সম্মেলন করেছিলেন গত মে মাসের দিকে।

জানা গেছে, গাজী আনিসের বাড়ি কুষ্টিয়ায়। তিনি একসময় জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলেন। তিনি কুমারখালী উপজেলার পান্টি ইউনিয়নের পান্টি বাজার এলাকার মৃত ইব্রাহিম বিশ্বাসের ছেলে।