ফেরিঘাটে জনস্রোত, উপেক্ষিত স্বাস্থ্যবিধি

৪১

পরিবারের সঙ্গে ঈদ করতে বিধিনিষেধ, ভোগান্তি আর স্বাস্থ্যঝুঁকি উপেক্ষা করে বাড়ি ফিরছে মানুষ। ফেরিঘাটগুলোতে আজও রয়েছে যাত্রীচাপ।

বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌরুটে ঘরমুখো যাত্রীদের স্রোত নেমেছে। বৃহস্পতিবার (১৩ মে) ভোর থেকেই ফেরিতে যাত্রীদের চাপ ছিলো চোখে পড়ার মতো।

ঘাট কর্তৃপক্ষ জানায়, মাদারীপুরের বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌরুটে করোনা মহামাররির লকডাউনে লঞ্চ ও স্পিডবোট চলাচল বন্ধ রয়েছে। ফলে যাত্রীদের চাপ বেড়েছে ফেরিতে। ঘণ্টার পর ঘণ্টা ঘাটে অপেক্ষা করে ফেরিতে উঠছেন যাত্রীরা। পরে তিন থেকে চারগুন বাড়তি ভাড়া দিয়ে বিভিন্ন যানবাহনে নিজ নিজ গন্তব্যে ছুটছেন যাত্রীরা। তবে, উপেক্ষিত ছিলো স্বাস্থ্যবিধি। একে অপরের গায়ে ঘেঁষে যাতায়াত করাতে বাড়ছে করোনা ঝুঁকি।

এছাড়া ঘাটের উভয়পাড়ে যানবাহনের চাপ বেড়েছে। দূরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধ থাকলেও ভোর থেকে তা চলাচল করতে দেখা গেছে। এতে ঘাট এলাকায় সৃষ্টি হয়েছে তীব্র যানজটের। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করছে পুলিশ ও প্রশাসনের কর্মকর্তারা।