ফ্রান্সকে বিদায় করে ইতিহাস গড়লো ক্রোয়েশিয়া

ফ্রান্সকে এর আগে কখনই হারাতে পারেনি ক্রোয়েশিয়া। ১৯৯৮ সালের বিশ্বকাপে ফরাসিদের সাথে প্রথম দেখায় ২-১ গোলে হেরেছিল তারা। এরপর আরও আটবার দেখা হয়েছে ফরাসিদের সাথে। কিন্তু প্রত্যেকবারই হতাশা সঙ্গী হয়েছে তাদের। এর মধ্যে সবচেয়ে যন্ত্রণাদায়ক ছিল ২০১৮ বিশ্বকাপের ফাইনালে হার।

অবশেষে সেই বাধা পেরুলো ক্রোয়েশিয়ার। উয়েফা নেশনস লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের বিদায় করেই ‘প্রতিশোধ’টা নিলো ক্রোয়াটরা, তুলে নিলো ফরাসিদের বিপক্ষে নিজেদের প্রথম জয়।

সোমবার রাতে ফ্রান্সকে তাদের ঘরের মাঠেই ১-০ গোলে হারিয়েছে ক্রোয়েশিয়া। পেনাল্টি থেকে একমাত্র গোলটি করেন তারকা মিডফিল্ডার লুকা মদ্রিচ।

ম্যাচে আক্রমণ কিংবা বল দখল সব দিক থেকেই এগিয়ে ছিল ফ্রান্স। তবে ম্যাচের পঞ্চম মিনিটেই পিছিয়ে পড়ার পর ঠিক গোছানো ফুটবল খেলতে পারেনি ফ্রান্স। ম্যাচে মোট ১৭টি শট নেয় ফ্রান্স, যার মধ্যে ৪টি ছিল লক্ষ্যে। অন্যদিকে নিজেদের বাঁচিয়ে খেলা ক্রোয়েশিয়া সুযোগ বুঝে আক্রমণ করেছে। ৪ শটের তিনটি ছিল তাদের লক্ষ্যে।

পঞ্চম মিনিটে ডি-বক্সে ক্রোয়েশিয়ার আন্তে বুদিমিরি ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। মদ্রিচের জোরালো স্পট কিক ফান্সের গোলরক্ষক মাইক মিয়াঁ রুখতে পারেননি।

এরপর গোল শোধের জন্য মরিয়া হয়ে একের পর এক আক্রমণ করেছে ফ্রান্স। কিন্তু প্রতিপক্ষের রক্ষণ দুর্গ ভেঙে জাল কাঁপাতে পারেননি বেনজেমা-এমবাপ্পেরা। একমাত্র গোল ধরে রেখে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে ক্রোয়েশিয়া।