বগুড়ায় সিয়াম হত্যা মামলার আসামী গ্রেফতার

৬০

বগুড়া জেলার শাহাজাহানপুরে শিশু সিয়ামকে (৭) হত্যার অভিযোগে এক নারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সে সিয়ামের দূর সম্পর্কের নানি বলে জানিযেছে পুলিশ। চাঞ্চল্যকর এ হত্যাকান্ডের ২ ঘন্টার মাথায় শাহাজাহানপুর থানা পুলিশ ও জেলা গোয়েন্দা পুলিশ মূল আসামীকে গ্রেফতার করে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় জেলার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভুঞা নিজ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে একথা জানান। গ্রেফতার হওয়া মালতি বেগম (৫২) শাহাজাহানপুর উপজেলার পলিপালাশ গ্রামের মুসলিম উদ্দিনের স্ত্রী।

মঙ্গলবার দুপুরে শাহাজাহানপুর উপজেলার গোহাইল ইউনিয়নের পানিহালী গ্রামের মাঠ থেকে পুলিশ সিয়ামের (৭) মরদেহ উদ্ধার করে। সিয়াম পার্শ্ববর্তী নন্দীগ্রাম উপজেলার ভাটগ্রাম ইউনিয়নের তেঁতুলগাড়ি গ্রামের মৃত নজরুল ইসলামের ছেলে।

পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভুঞা সংবাদ সম্মেলনে বলেন, সম্পর্কে মালতি বেগম নিহত সিয়ামের দূর সম্পর্কের নানি।

জিজ্ঞাসাবাদে পর মালতি জানায় , মঙ্গলবার সকাল আনুমানিক সাড়ে ৮টায় সিয়ামকে খাবারের প্রলোভন দিয়ে মালতি বাড়ি থেকে নিয়ে যান। রাস্তাায় নিহতসিয়ামের মা ও মামির সাথে তাদের দেখা হয়। এক পর্যায়ে মালতি একটি দোকান থেকে খাবার কিনে দিয়ে তেঁতুলগাড়ি গ্রাম থেকে দুই কিলোমিটার উত্তরে শাহাজাহানপুরের পানিহালী এলাকায় একটি ধান ক্ষেতে নিয়ে সিয়ামকে হাসুয়া দিয়ে জবাই করে। পরে নিহতের দেহ পাশের ক্ষেতে ফেলে দেয় এবং হাসুয়া ধান ক্ষেতে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।

ঘটনার পরে পুরো এলাকায় মাইকিং হলে সাবিনা ও তার ভায়ের স্ত্রী ছাড়াও আরও দুজন সাক্ষী পাওয়া যায় যারা মালতির সঙ্গে সিয়ামকে ধানক্ষেতে যেতে দেখেছেনবলে জানান বগুড়া পুলিশ সুপার ।

পরে মালতির বাড়ি গিয়ে রক্তমাখা বোরকা ধোয়া অবস্থায় ও তাকে পাওয়া যায়।,এসময় তাকে হাতেনাতে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে মালতি প্রাথমিকভাবে সবকিছু স্বীকার করেছেন।

You might also like