‘বঙ্গবন্ধু’ বিপিএলের চ্যাম্পিয়ন রাজশাহী রয়্যালস

১০১

বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্টে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন হলো রাজশাহী রয়্যালস। গতকাল টুর্নামেন্টের ফাইনালে খুলনা টাইগার্সকে ২১ রানে হারিয়ে প্রথমবারের মত টুর্নামেন্টের শিরোপা জিতে রাজশাহী।

ছবি : সংগৃহীত

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শততম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বিশেষ বিপিএলের শিরোপা ঘরে তোলা রাজশাহী টুর্নামেন্ট ইতিহাসে নতুন চ্যাম্পিয়ন হিসেবে শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট পড়লো উত্তর বঙ্গের দলটি।

বিপিএলের সপ্তম আসরের ফাইনলে প্রথমে ব্যাট করে ২০ ওভারে ৪ উইকেটে ১৭০ রান করে রাজশাহী রয়্যালস।

জবাবে ইনিংসের প্রথম ওভারেই ধাক্কা খায় খুলনা। আগের দুই ম্যাচে অপরাজিত ১১৫ ও ৭৮ রান করা ওপেনার নাজমুল হোসেন শান্ত শুন্য হাতে প্যাভিলিয়নে ফিরেন। প্রথম ওভারের দ্বিতীয় বলে রাজশাহীর পাকিস্তানী পেসার মোহাম্মদ ইরফানকে পয়েন্ট দিয়ে কাট করেন শান্ত। বাঁ-দিকে ঝাপিয়ে পড়ে উড়ন্ত ক্যাচ নেন লিটন।

আরেক ওপেনার মেহেদি হাসান মিরাজও ব্যর্থ। ২ রানের বেশি করতে পারেননি তিনি। তাই প্রথম ১১ বলের মধ্যে ১১ রানে দুই ওপেনারকে হারিয়ে মহাবিপদেই পড়ে খুলনা।

ছবি : সংগৃহীত

এ অবস্থায় ঠান্ডা মাথায় দলের হাল ধরেন শামসুর রহমান ও দক্ষিণ আফ্রিকার রাইলো রুশো। এই জুটি দলকে লড়াইয়ে ফেরান। ৫৩ বলে ৭৪ রানের দুর্দান্ত জুটি গড়েন তারা। অবশ্য এই জুটি দলীয় ৪৪ রানেই থামতে পারতো, যদি না রাজশাহীর আবু জায়েদ রুশোর ক্যাচটি ফেলতেন।

ষষ্ঠ ওভারের চতুর্থ বলে পাকিস্তানের শোয়েব মালিকের বলে কভার দিয়ে মারতে গিয়ে জায়েদকে ক্যাচ দেন রুশো। কিন্তু সেটি ফেলে দেন জায়েদ। ফলে ১৮ রানে জীবন পান রুশো।

অবশ্য জীবন পেয়ে বড় ইনিংস খেলতে পারেননি রুশো। পাকিস্তানের নওয়াজের বলে রাসেলকে ক্যাচ দিয়ে আউট হন তিনি। ২৬ বলে ১টি করে চার-ছক্কায় ২৬ রান করেন রুশো।

রুশো থামলেও ৩৮তম বলে এবারের আসরে দ্বিতীয় হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদ নেন শামসুর। হাফ-সেঞ্চুরির পরই শামসুরকে বিদায় দেন রাজশাহীর পেসার কামরুল ইসলাম রাব্বি। ১৪তম ওভারের প্রথম বলে দলীয় ১০১ রানে আউট হন শামসুর। এমন অবস্থায় জয়ের জন্য ৭ উইকেট হাতে নিয়ে ৭০ রান দরকার ছিলো খুলনার।

আশার প্রদীপ হিসেবে টিকে ছিলেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম, আফগানিস্তানের নাজিবুুল্লাহ জাদরান ও ফ্রাইলিঙ্ক।

কিন্তু তিনজনের কেউই গ্র্যান্ড ফাইনালে ব্যাট হাতে জ্বলে উঠতে পারেননি। মুশফিক ২১, জাদরান ৪ ও ফ্রাইলিঙ্ক ১২ রানে আউট হন। শেষ পর্যন্ত ৮ উইকেটে ১৪৯ রান করে ফাইনাল হারে খুলনা।

অনলাইন নিউজ ডেস্ক/বিজয় টিভি

You might also like