বরগুনায় আগুনে পুড়িয়ে গৃহবধুকে হত্যা; স্বামী আটক

বরগুনায় স্বামীর পরকিয়ার জের ধরে স্ত্রীকে কেরসিন দিয়ে আগুন দেয়ায় নাসরিন নামের দুই সন্তানের মা এক গৃহবধুর মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার ঢাকার বার্ণ ইউনিটে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত নাসরিনের স্বামী মহসীনকে আটক করেছে পুলিশ। তবে পলাতক রয়েছে অন্য অভিযুক্তরা।


বরগুনা সদর উপজেলার বড় লবনগোলার দুলাল হাওলাদারের মেয়ে হামিদার সাথে প্রেমের সর্ম্পক গড়ে ওঠে নাসরিনের স্বামী মহাসিনের। এ নিয়ে গত ২৪ জুন ঝগড়া হয় নাসরিনের। ঝগড়ার এক পর্যায়ে নাসরিনের স্বামী মারধর করে তাকে পরে তার পরিবারের লোকজন মিলে সাউন্ডবক্স্রে গান বাজিয়ে চেয়ারের সাথে বেধে শরীরে কেরসিন দিয়ে আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে দেয় নাসরিনকে।

পরে প্রতিবেশিরা চিৎকারের শব্দ শুনে তাকে উদ্ধার করে বরগুনা সদর হাসপাতালে ভর্তি করলে প্রথমে বরিশাল ও পরে ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে পাঠিয়ে দেয় চিকিৎস্যকরা। তবে শনিবার সকালে চিকিৎস্যা চলকালীন অবস্থায় মারা যায় তিনি।

এদিকে বর্তমানে নাসরিনের দুই সন্তান তামিম ও রামিম রয়েছে অনিরাপত্তায়। তাই তাদের দুজনকে ভরন পোষনের জন্য দাযিত্ব নিতে চায় নাসরিনের পরিবার।

এ ঘটনায় ৫ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছে নিহতের বাবা। আর পুলিশ বলছে এ ঘটনায় নাসরিনের স্বামী মহাসিনকে গ্রেফতার করেছে তারা। আর অন্য অভিযুক্তদের গ্র্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

৯ বছর আগে নাসরিনের সাথে একই এলাকার ইউসুফ মৃধার ছেলে মহসীনের সাথে প্রথমে প্রেমের সম্পর্ক ও পরে বিবাহ হয়।

 

নিউজ ডেস্ক / বিজয় টিভি

You might also like