বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশন ভবন নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী

আগারগাঁওয়ে বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশন ভবন নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। রোববার ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে তিনি এ ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন । ২টি ভূগর্ভস্থ বেইজমেন্টসহ ১২ তলা বিশিষ্ট এ ভবনটি ৩৮.৬৩ কোটি টাকায় নির্মিত হবে। ভবনটি নির্মিত হলে বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশনের স্থায়ী দপ্তর স্থাপিত হবে।

ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় অর্থমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের মহান স্থপতি, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং উন্নয়নশীল দেশ হিসাবে উত্তরণের চূড়ান্ত যোগ্যতা অর্জন- একসাথে এ তিনটি বিশেষ ঘটনার যোগসূত্রের এ বছরটি, বাংলাদেশের জাতীয় জীবনে লাল অক্ষরে লেখা একটি বছর। জাতির পিতার অর্থনৈতিক দর্শন অনুসরণ করে আধুনিক বাংলাদেশের রূপকার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী ও হিরন্ময়ী নেতৃত্বে গত একদশক গড়ে ৭.৪ শতাংশ হারে অভূতপূর্ব অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জিত হয়েছে। এমনকি অপ্রত্যাশিত অভিঘাত কোভিড-১৯ মহামারিকালে গতবছর যেখানে বৈশ্বিক অর্থনীতি ৩ শতাংশ সংকুচিত হয়েছে, এমন ক্রান্তিকালেও বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের জরিপ অনুযায়ী বাংলাদেশ শীর্ষ পাঁচটি সহনশীল অর্থনীতির মধ্যে রয়েছে। তিনি আরো বলেন, গতমাসে অনুষ্ঠিত জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদ সভার টেকসই উন্নয়নে আন্তর্জাতিক সম্মেলন ২০২১-এ আমাদের উন্নয়ন প্রচেষ্টাকে স্বীকৃতি দিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে এসডিজি প্রগ্রেস অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত করেছে।

অর্থমন্ত্রী আরো বলেন, বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশন দেশের প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র এনজিওর মাধ্যমে সুবিধাবঞ্চিত, পিছিয়ে পড়া, অসহায়, অতি দরিদ্র জনগোষ্ঠীর উন্নয়নে বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করে

দারিদ্র্যমোচনে কাজ করে যাচ্ছে। প্রায় সাড়ে সাত হাজার গ্রামে ১ হাজার ১২০টি এনজিও (সহযোগী সংস্থা) ফাউন্ডেশনের তত্ত্বাবধানে হতদরিদ্র মানুষের সেবা করে যাচ্ছে। বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশন কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে বিশেষ ঋণ কর্মসূচি হিসেবে পল্লী এলাকার প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নে কাজ করছে। বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশন অতীতের ন্যায় ভবিষ্যতেও প্রান্তিক ও অসহায় জনগোষ্ঠীর ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করে যাবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

You might also like