বিজিবি’র অভিযানে ১৩০ কোটি টাকার চোরাচালান পণ্য ও মাদকদ্রব্য আটক

২৫

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) এপ্রিলে দেশের সীমান্ত এলাকাসহ অন্যান্য স্থানে অভিযান চালিয়ে ১৩০ কোটি ২৭ লাখ ৬৯ হাজার টাকা মূল্যের বিভিন্ন ধরনের চোরাচালান পণ্য ও মাদকদ্রব্য আটক করেছে।

আটককৃত মাদক দ্রব্যের মধ্যে রয়েছে, ১৬ লাখ ৯০ হাজার ২৭৬ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ১৮ হাজার ৩৫৯ বোতল ফেনসিডিল, ১৭ হাজার ৬৫৩ বোতল বিদেশী মদ, ১ন হাজার ৩৫৫ ক্যান বিয়ার, ১ হাজার ৭১৭ কেজি গাঁজা, ১৩ কেজি ৯৭ গ্রাম হেরোইন, ১৯ হাজার ৬৫৮টি উত্তেজক ইনজেকশন, ৪ হাজার ৫৯৮টি ইস্কাফ সিরাপ, ১১ হাজার ৫৯৮টি এ্যানেগ্রা অথবা সেনেগ্রা ট্যাবলেট এবং ২ লাখ ১১ হাজার ৯৯৭টি অন্যান্য ট্যাবলেট।

চোরাচালান পণ্যের মধ্যে রয়েছে, ২ কেজি ১০০ গ্রাম স্বর্ণ, ৩৭ কেজি ৩০০ গ্রাম রূপা, ১ লাখ ৪০ হাজার ১৭৬টি কসমেটিক্স সামগ্রী, ১২ হাজার ৬৯৩টি ইমিটেশন গহনা, ৪ হাজার ৩৮৫টি শাড়ি, ১ হাজার ৩৬৫টি থ্রিপিস অথবা শার্টপিস, ৫৬৩টি তৈরী পোশাক, ৬ হাজার ৮৭০ ঘনফুট কাঠ, ৫ হাজার ৬৫৮ কেজি চা পাতা, ১২ হাজার ৯৮০ কেজি কয়লা, ১২টি ট্রাক বা কাভার্ডভ্যান, ১টি প্রাইভেটকার, ৩টি পিকআপ, ৮টি সিএনজি ইঞ্জিন চালিত অটোরিকশা এবং ১২২টি মোটর সাইকেল।

উদ্ধারকৃত অস্ত্রের মধ্যে ৫টি পিস্তল, ২টি বন্দুক, ১টি এলজি, ৬১০ কেজি বিস্ফোরক দ্রব্য এবং ১৪ রাউন্ড গুলি রয়েছে।

এছাড়াও বিজিবি’র অভিযানে ইয়াবাসহ বিভিন্ন ধরনের মাদক পাচার ও অন্যান্য চোরাচালানে জড়িত থাকার অভিযোগে ২২৩ জনকে এবং অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রমের অপরাধে ১১৮ জন বাংলাদেশী ও ৪ জন ভারতীয় নাগরিককে আটক করা হয়েছে।

You might also like