ভারত সবচেয়ে বেশি টিকা দিয়েছে বাংলাদেশকে : রাষ্ট্রদূত দুরাইস্বামী

৬৫

বাংলাদেশের ঢাকায় নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার বিক্রম দুরাইস্বামী বলেন, এই করোনা পেনডেমিকের মধ্যেও ভারত-বাংলাদেশের সুসম্পর্ক বজায় রয়েছে। ভারত বাংলাদেশের সম্পর্ক সব সময়ই সুম্পর্ক। বর্তমানে একটি অস্বাভাবিক পরিবেশ বিরাজ করছে। আশা করছি আমরা রমজান মাস উপলক্ষে ইতিবাচক মানসিকতা নিয়ে একসাথে প্রার্থনা করি আমরা সবাই এই সমস্যা কোভিড-১৯ মোকাবেলা করতে পারবো।

বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৯টায় ভারতের আগরতলা থেকে আখাউড়া আন্তর্জাতিক ইমিগ্রেশন চেকপোষ্ট দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশকালে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

ভ্যাকসিন প্রাপ্তির বিষয়ে তিনি বলেন, সারা বিশ্বেই ভ্যাকসিনের সংকট রয়েছে। সরবরাহের চেয়ে চাহিদা বেশি। সবাই কাজ করছে কী ভাবে ভ্যাকসিনের প্রাপ্ত্যতা নিশ্চিত করা যায়। বাংলাদেশকে ভ্যাকসিন দেওয়ার ব্যাপারে আমরা সাধ্যমত কাজ করছি। দেখি কতটুকু সহযোগিতা করতে পারি।

ভ্যাকসিনের কারণে দুদেশের সম্পর্ক ভাটা পড়বে কীনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বর্তমান ভারতে টিকার মারাত্মক সংকট রয়েছে। ভারত থেকে বাংলাদেশ সবচেয়ে বেশি টিকা পেয়েছে। অন্য কোন দেশ তা পাইনি। আমাদের সীমিত উৎপাদনের মধ্যে বাংলাদেশকে টিকা দেওয়ার ব্যাপারে কাজ করছি।

তিনি আরও বলেন, করোনার দ্বিতীয় ঢেউ খুব বড় ঢেউ। ভারতে বর্তমান অবস্থা খুব খারাপ। আমরা সবাই সমস্যা সমাধানে একসাথে কাজ করছি। দুই দেশের মানুষের স্বার্থে কি করতে পারি। এজন্য আমি দিল্লী প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে গিয়েছিলাম।

এসময় তাঁর স্ত্রী সঙ্গীতা দুরাইস্বামী সঙ্গে ছিলেন।এসময় চেকপোষ্টে তাঁকে স্বাগত জানান আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ নূর-এ-আলম ও ওসি মোঃ মিজানুর রহমান। পরে তিনি সড়ক পথে আখাউরা হতে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন।