ভাষা আন্দোলন নিয়ে সিনেমা আর কতোদূর?

৫৫

অনুভূতির রঙ যেমন আছে তেমনি একটি ভাষারও নিজস্ব রঙ রয়েছে। মনের আকুতি প্রকাশের একমাত্র সংকেত ভাষা। এই সংকেতের আদান-প্রদান ছাড়া মানুষ হয়ে যায় বিচ্ছিন্ন দ্বীপের মতো। তাই ভাষাই হয়ে ওঠে বেঁচে থাকার হাতিয়ার।

ভাষার জন্য একমাত্র বাঙালি জাতি বুকের তাজা রক্ত দিয়েছিল। কিন্তু মহান মুক্তিযুদ্ধের আগ দিয়ে ভাষা আন্দোলন নিয়ে দেশে নির্মিত হয়েছিল মাত্র একটি সিনেমা। ছবিটি ছিল জহির রায়হানের জীবন থেকে নেয়া। ছবির গল্প রূপক অর্থে ভাষা আন্দোলনকেই প্রতিনিধিত্ব করেছিল।

এরপর বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর মহান মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে বেশ কিছু চলচ্চিত্র নির্মিত হলেও ভাষা আন্দোলনকে প্রাধান্য দিয়ে শহীদুল ইসলাম খোকনের ‘বাঙলা’ ছাড়া আর কোনও চলচ্চিত্র নির্মিত হয়নি। ২০০৬ সালে মুক্তি পায় এই ছবিটি।

প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক আহমেদ ছফার ‘ওংকার’ উপন্যাস নিয়ে ইমপ্রেস টেলিফিল্মের ব্যানারে নির্মিত হয় ‘বাঙলা’। হুমায়ুন ফরীদি, মাহফুজ আহমেদ, শাবনূর অভিনীত এ ছবির শেষ দৃশ্যে একজন বোবা মেয়ের মুখ থেকে বের হয়ে আসে একটি শব্দ, আর সেটি হচ্ছে ‘বাঙলা’।

সবশেষ ২০১৯ সালে মুক্তি পায় ভাষা আন্দোলন নিয়ে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘ফাগুন হাওয়ায়। তৌকীর আহমেদের ‘ফাগুন হাওয়ায়’ ছবিটি বায়ান্নর প্রেক্ষাপট নিয়ে তৈরি। ‘ফাগুন হাওয়ায়’ ছবির প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয় বঙ্গভবনে। সেখানে ছবিটি দেখেছিলেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

কিন্তু এই ছবির জন্য সরকারি অনুদান চেয়েও পান তা পাননি নির্মাতা। যার কারণে অভিমান থেকেই সিনেমা নির্মাণে দীর্ঘ বিরতি নিয়েছিলেন তৌকীর আহমেদ। সে যাক। চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট অনেকেই দাবি করছেন, চলচ্চিত্র শিল্পের সার্বিক উন্নয়নের জন্য আলাদা মন্ত্রণালয়ের। যার নাম হবে চলচ্চিত্র মন্ত্রণালয়।

You might also like