মাকে হত্যার অভিযোগে ছেলে আটক

শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে মাকে কুপিয়ে ও আঘাত করে হত্যার পর মরদেহ নদীতে ফেলে দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত ছেলে ফারুককে (৩৫) আটক করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (৩ জুন) ভোরের দিকে এ হত্যাকাণ্ড ঘটানো হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, পৌর শহরের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের নিজপাড়া মহল্লার মৃত সিরাজুল ইসলামের স্ত্রী দিনমজুর নুর বানু (৫৫) তার ছেলে ফারুককে নিয়ে একটি ঝুপড়ি ঘরে বসবাস করতেন। অপর ছেলে মনির ঢাকায় কাজ করেন। ফারুক মানসিকভাবে কিছুটা অস্বাভাবিক। তিনি প্রায়ই তার মাকে মারধর করতেন।

প্রতিদিনের মতো বৃহস্পতিবার (২ জুন) রাতে মা-ছেলে ঘুমিয়ে পড়েন। রাতের কোনো একসময় নুর বানুকে দা দিয়ে কুপিয়ে এবং শিল দিয়ে আঘাত করে হত্যা করেন ছেলে ফারুক। পরে মরদেহ টেনে নিয়ে পাশের ভোগাই নদীতে ফেলে রাখেন।

শুক্রবার ভোরে স্থানীয়রা মা নুর বানুর রক্তাক্ত মরদেহ নদীতে ভাসতে দেখেন। খবর পেয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বছির আহমেদ বাদলসহ পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে যান। এ সময় অভিযুক্ত ছেলে ফারুক পালানোর চেষ্টা করলে তাকে আটক করা হয় এবং নদী থেকে মরদেহ উদ্ধার হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নালিতাবাড়ী থানার ওসি বছির আহমেদ বাদল জানান, ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ শেরপুর মর্গে পাঠানোর এবং মামলার প্রস্তুতি চলছে। অভিযুক্ত ছেলেকে আটক করা হয়েছে।

 

You might also like