মান খারাপের কারনে ভিটামিন ‘এ’ খাওয়ানো বন্ধ

ক্যাপসুলের মান নিম্নমানের হওয়ার অভিযোগে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানোর কর্মসূচি আকস্মিকভাবে স্থগিত করেছে সরকার। আগামীকাল শনিবার সারা দেশে ২ কোটি ২০ লাখ শিশুকে এই ক্যাপসুল খাওয়ানোর কথা ছিল। এই ঘটনা তদন্তে দুটি পৃথক কমিটি গঠন করেছে সরকার।

গত সপ্তাহে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছিল। এরপর দেশের বিভিন্ন এলাকায় ভিটামিন এ ক্যাপসুল পাঠানো হয়। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মাঠপর্যায়ের কর্মী ও কর্মকর্তারা ক্যাপসুলের মান নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেন। তাঁরা ক্যাপসুলে ছত্রাক রয়েছে বলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে জানান। এরপর গত বুধবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এই কর্মসূচি স্থগিতের ঘোষণা দেয়।

এই ঘটনার বিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল কালাম আজাদ গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানোর কর্মসূচি স্থগিতের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। স্থগিতের কারণ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, কয়েকটি জায়গায় ক্যাপসুল জোড়া লাগানো দেখা গেছে। এ জন্য কর্মকর্তারা আর কোনো ঝুঁকি নিতে চাননি। তাই ক্যাপসুল খাওয়ানো আপাতত স্থগিত করা হয়েছে।

প্রসঙ্গ, আগামীকাল শনিবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত স্বাস্থ্যকর্মী ও স্বেচ্ছাসেবকদের শিশুদের ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানোর কথা ছিল। স্থায়ী টিকা কেন্দ্র ছাড়াও বাসস্ট্যান্ড, লঞ্চঘাট, ফেরিঘাট, ব্রিজের টোল প্লাজা, বিমানবন্দর, রেলস্টেশন, খেয়াঘাটসহ বিভিন্ন স্থানে ও ভ্রাম্যমাণ কেন্দ্রে শিশুদের ভিটামিন এ খাওয়ানোর কথা।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্র জানিয়েছে, ২০১২ সালেও ভিটামিন এ ক্যাপসুল নিয়ে জটিলতা দেখা দিয়েছিল। তখন অবশ্য মান নিয়ে কোনো কথা ওঠেনি। জটিলতা হয়েছিল মূলত কার্যাদেশ দেওয়া নিয়ে।

নিউজ ডেস্ক / বিজয় টিভি
You might also like