মিয়ানমারের ১৫ সেনাকে হত্যার দাবি প্রতিরোধ বাহিনীর

মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর ১৫ সেনাকে হত্যার দাবি করেছে জান্তাবিরোধী প্রতিরোধ বাহিনী। তাদের দাবি অনুসারে, দেশটির সাগাইং ও কারেন রাজ্যে পৃথক সংঘর্ষে এই সেনাদের হত্যা করা হয়েছে। মিয়ানমার-বিষয়ক সংবাদমাধ্যম ইরাবতী এখবর জানিয়েছে।

কারেন ন্যাশনাল ইউনিয়নের অন্তর্ভুক্ত কারেন ন্যাশনাল লিবারেশন আর্মির সঙ্গে সংঘর্ষে সেনাবাহিনীর ৭ সদস্য নিহত হয়েছে। কারেন রাজ্যে প্রতিরোধ বাহিনী একটি সামরিক ফাঁড়ি দখল করেছে।

ইরাবতীর পক্ষ থেকে এই দাবির সত্যতা স্বতন্ত্রভাবে যাচাই করা সম্ভব হয়নি।

বুধবার এক বিবৃতিতে কারেন ন্যাশনাল ইউনিয়ন বলেছে, মাসব্যাপী অবরোধের পর মাত্র ১৭ মিনিটের হামলায় সেনাবাহিনীর ফাঁড়ি দখল করেছে। এসময় সাত সেনা নিহত ও আহত দুই সেনাকে বন্দি করা হয়।

নিজেদের দাবির পক্ষে জব্দকৃত অস্ত্র ও গোলাবারুদের একটি ছবি প্রকাশ করেছে কারেন ন্যাশনাল ইউনিয়ন।

মঙ্গলবার কারেন ন্যাশনাল লিবারেশন আর্মি থাইল্যান্ড সীমান্তের কাছে মায়াবতী টাউনশিপের একটি গ্রামে সেনাবাহিনীর তিনটি ব্যাটালিয়নের ওপর হামলা চালিয়েছে। প্রতিরোধ বাহিনীর কোবরা কলাম দাবি করেছে, তাদের স্নাইপারের গুলিতে দুই সেনা নিশ্চিতভাবে নিহত হয়েছে।

কয়েক মাস ধরে থাই সীমান্তবর্তী গ্রামগুলোতে সেনাবাহিনীর সঙ্গে প্রতিরোধ বাহিনীর লড়াই চলছে।

You might also like