যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত শুক্কুর আলী ও দিদার গ্রেপ্তার

খুনসহ ডাকাতি মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত এবং পূর্ব বাংলা কমিউনিস্ট পার্টি লাল পতাকা ওরফে সর্বহারা দলের চরমপন্থি নেতা শুক্কুর আলী ও তার প্রধান সহকারী দুর্ধর্ষ ডাকাত দিদারকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।

র‌্যাব-৩ এর একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) রাতে নারায়ণগঞ্জ জেলার ফতুল্লা থানা এলাকা হতে তাকে গ্রেপ্তার করে।

বুধবার (৫ অক্টোবর) দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজার র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-৩ এর অধিনায়ক (সিও) লে. কর্নেল আরিফ মহিউদ্দিন আহমেদ।

তিনি বলেন, খুনসহ, ডাকাতি মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত হবিগঞ্জ, নেত্রকোনা ও কিশোরগঞ্জের ত্রাস পূর্ব বাংলা কমিউনিস্ট পার্টি লাল পতাকা ওরফে সর্বহারা চরমপন্থি দলের সদস্য এবং পেশাদার খুনি শুক্কুর আলী ও তার সহযোগী দিদার মিয়া।

শুক্কুর আলী জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে, ২০১১ সালের সেপ্টেম্বরে সর্বহারা পার্টির চরমপন্থি নেতা শুক্কুর আলী ও তার দল নেত্রকোনার খালিয়াজুড়ি থানার একটি বাড়ির দেয়াল ভেঙে বাড়িতে প্রবেশ করে স্বর্ণালংকার, নগদ টাকাসহ মূল্যবান মালামাল লুট করে।

ডাকাতির ঘটনায় ভুক্তভোগী মনোরঞ্জন সরকারের পুত্র বাধা দিলে তাকে রামদা দিয়ে কুপিয়ে নৃশংসভাবে হত্যা করে শুক্কুর আলী ও তার দল। অপর গ্রেপ্তার দিদার ওই হত্যাকাণ্ডে তার চাচা শুক্কুর আলীর প্রধান সহকারী হিসেবে ভূমিকা পালন করে। খুনসহ ডাকাতির ঘটনায় খালিয়াজুড়ি থানায় মামলা হয়।

গ্রেপ্তার শুক্কুর ও দিদার ওই মামলার অন্যতম প্রধান আসামি। বিচারিক প্রক্রিয়া শেষে আদালত ২০১৯ সালে তাদের বিরুদ্ধে যাবজ্জীবন সাজা প্রদান করে। তারা গ্রেপ্তার এড়াতে এলাকা ত্যাগ করে এবং নারায়ণগঞ্জে স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করে ও মাছের ব্যবসা করে। তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

You might also like