যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ৩২,০০০ ছাড়িয়েছে : জনস হপকিন্স

যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাস মহামারিতে বৃহস্পতিবার মৃতের সংখ্যা বেড়ে মোট ৩২ হাজার ৯১৭ জনে দাঁড়িয়েছে। জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটি এ তথ্য জানায়। খবর এএফপি’র।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টা (গ্রিনিচ মান সময় শুক্রবার ০০৩০টা) পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে ৪ হাজার ৪৯১ জন কোভিড-১৯ ভাইরাসে মারা গেছে। এ পর্যন্ত মহামারি এ ভাইরাসে প্রাত্যহিক হিসেবে মৃতের এ সংখ্যা সর্বোচ্চ।
কোভিড-১৯ ভাইরাস সংক্রান্ত ‘সম্ভাব্য’ মৃত্যু এ সংখ্যার সাথে যোগ করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। যা পূর্বের হিসাবে অন্তর্ভূক্ত করা হয়নি।

এ সপ্তাহে নিউইয়র্ক সিটি জানায়, করোনাভাইরাস উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন এ ধরণের ‘সম্ভাব্য’ মৃত্যুর সংখ্যা ৩ হাজার ৭৭৮ জন। তাদের এই সংখ্যা মোট মৃত্যুর সংখ্যার সাথে যোগ করা হবে।

বৃহস্পতিবার রাতে যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও সুরক্ষা কেন্দ্র করোনাভাইরাসে ৩১ হাজার ৭১ জনের মৃত্যুর কথা জানিয়েছিল। এ সংখ্যার মধ্যে করোনাভাইরাস সংক্রান্ত ‘সম্ভাব্য’ মৃত্যুর সংখ্যা ৪ হাজার ১৪১ জন অন্তর্ভূক্ত রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের মৃতের এ সংখ্যা বিশ্বে সর্বোচ্চ। এর পরের অবস্থানে রয়েছে ইতালি। দেশটিতে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে মোট ২২ হাজার ১৭০ জনে দাঁড়িয়েছে। তবে ইতালির জনসংখ্যা যুক্তরাষ্ট্রের এক-পঞ্চমাংশ।

স্পেনে করোনাভাইরাসে মোট মারা যাওয়ার সংখ্যা ১৯ হাজার ১৩০ জনে দাঁড়িয়েছে। সেদিক থেকে এর পরের অবস্থানে রয়েছে ফ্রান্স। দেশটিতে করোনাভাইরাসে মারা গেছে মোট ১৭ হাজার ৯২০ জন।

যুক্তরাষ্ট্রে কোভিড-১৯ ভাইরাসে ৬ লাখ ৬৭ হাজার ৮০০ জনের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। গত দুইদিন দেশটিতে সবচেয়ে বেশি লোককে মারা যেতে দেখা গেছে।

কেবলমাত্র নিউইয়র্কে করোনাভাইরাসে ১২ হাজারের বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে কোভিড-১৯ মহামারি ভাইরাসের উৎপত্তি কেন্দ্র হচ্ছে নিউইয়র্ক।

এদিকে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতির চাকা ফের চালু করতে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পরিকল্পনা ঘোষণা করে তিনি অঙ্গরাজ্যের প্রত্যেক গভর্ণরকে স্বেচ্ছায় তাদের রাজ্য ফের খুলে দেয়ার অনুমতি দেন।

অনলাইন নিউজ ডেস্ক/বিজয় টিভি

You might also like