রাজকীয় অভিষেক শবনম ফারিয়ার

কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের ‘দেবী’ উপন্যাস অবলম্বনে গেল বছর নতুন একটি চলচ্চিত্রের শুটিং শুরু হয়েছিল। তারপর এপ্রিলের দিকে ছবিটির শুটিংয়ের কাজ শেষ হয় এবং গত শুক্রবার মুক্তি পেয়। জয়া আহসান প্রযোজিত সরকারি অনুদানে নির্মিত এই চলচ্চিত্রে আলোচিত ‘মিসির আলী’ চরিত্রে অভিনয় করেছেন অভিনয়শিল্পী চঞ্চল চৌধুরী, রানু চরিত্রে অভিনয় করেছেন জয়া আহসান ও নীলু চরিত্রে অভিনয় করেছেন শবনম ফারিয়া। শবনম ফারিয়ার অভিষেক হয় এই চলচিত্রের মাধ্যমে। এই প্রশঙ্গে তিনি বলেন-

আপনার অভিনীত প্রথম ছবি মুক্তি পেল। প্রত্যাশার সঙ্গে প্রাপ্তির কতটুকু যোগসূত্র ঘটছে?

আমি বলব এটা আমার জন্য রাজকীয় । তাই সবকিছুই স্বপ্নের মতো লাগছে। শুরুতেই সাহিত্যনির্ভর কাজের মধ্য দিয়ে আমার যাত্রা হলো। ছবিটিতে কাজের সময়ই প্রত্যাশা ছিল দর্শকরা ছবিটি গ্রহণ করবেন। তা পূরণ হয়েছে। ছবিটি দর্শক মনে-প্রাণে গ্রহণ করেছেন। প্রতিটি হলেই ছিল দর্শকের উপচে পড়া ভিড়। ছবি মুক্তির দিন থেকে দেবী টিমের সঙ্গে ঢাকা ও ঢাকার বাইরে প্রায় সব প্রেক্ষাগৃহে দর্শকদের সঙ্গে আনন্দ ভাগাভাগি করেছি। আমার পরিচিত যারাই ছবিটি দেখেছেন তারা প্রত্যেকেই আমার অভিনয়ের বেশ প্রশংসা করেছেন।

ফারিয়া থেকে নীলু হয়ে ওঠার গল্পটি বলুন?

আমি যখন অষ্টম কি নবম শ্রেণিতে পড়ি, তখন হুমায়ূন আহমেদের ‘দেবী’ উপন্যাসটি পড়ি। তখনও ভাবিনি যে, এই উপন্যাসের কোনো চরিত্র আমার জীবনের সঙ্গে জড়িয়ে যাবে। এরপর যখন এই ছবিতে অভিনয়ের জন্য আমার কাছে প্রস্তাব এলো, তখন আমি এক বাক্যে রাজি হয়েছি। ছবিতে অভিনয়ের আগে অনেকবার দেবী উপন্যাসটি পড়ি। বলা যেতে পারে নীলুকে জানতেই পড়েছি অনেকবার। এরপর ছবির দৃশ্যধারণের সময় সবাই ফারিয়া নয়, নীলু নামেই বেশি ডেকেছে।

জয়া আহসান ও ইরেশ যাকেরের সঙ্গে অভিনয়ের অভিজ্ঞতা কেমন ছিল?

ছবিতে রানু চরিত্রে অভিনয় করেছেন জয়া আহসান। আর নীলুর প্রেমিক আহমেদ সাবের চরিত্রে ছিলেন ইরেশ যাকের। তার সঙ্গে আমার পর্দা রসায়নটাও ছিল চমৎকার। শুটিংয়ের সময় জয়া আহসান ও ইরেশ যাকের আমাকে বেশ সহযোগিতা করেছেন। সহযোগিতাপরায়ণ সহশিল্পী না পেলে কাজ করা অনেক মুশকিল। সেই জায়গার নীলু চরিত্রটির জন্য পরিচালকসহ প্রতিটি অভিনয়শিল্পীর সহযোগিতা ছিল শতভাগ।

বাস্তবে ফারিয়ার সঙ্গে চরিত্রটি তো একেবারে উল্টো। চ্যালেঞ্জিং মনে হয়নি?

বাস্তবে আমি চঞ্চল প্রকৃতির। কিন্তু নীলু তার বিপরীত, একেবারে অন্তর্মুখী। তাই কিছুটা তো চ্যালেঞ্জিং ছিল। আমি যা নই সে ধরনের চরিত্রই আমার বেশ পছন্দ। চ্যালেঞ্জিং চরিত্রে অভিনয়ের অনেক সুযোগ থাকে।

নিউজ ডেস্ক / বিজয় টিভি

You might also like