শরীরের উপরে কী প্রভাব ফেলে এক কাপ কালো চা

লাল চা কিংবা কালো চা। দু’নামেই পরিচিত। দুধ না দিয়ে, শুধু চা পাতা গরম পানিতে ভেজানো। তাতেই তৈরি সকাল শুরুর পানীয়। বাঙালির ঘরে ঘরে এখন অতিথি আপ্যায়নের চায়ের রংও এমনই। কখনও গরম। আবার গ্রীষ্মকালে বরফ দিয়ে ঠান্ডা চা। পোশাকি নাম ‘আইসড টি’। দিনে কয়েক বার করে, নানা লাল চা পানের অভ্যাস রয়েছে বাঙালিদের একটি বড় অংশের মধ্যে।

কিন্তু এই পানীয় শরীরের জন্য কি আদৌ ভাল? এতেও তো থাকে ক্যাফিন। তা কি ক্ষতি করে না শরীরের? আসলে শুধু স্বাদের জন্য চা পানের রেওয়াজ তৈরি হয়নি। এই পানীয়ের নানা রকম গুণ রয়েছে। যা শরীর সতেজ রাখতে সাহায্য করে।

শরীর আর্দ্র রাখে লাল চা। এই পানীয়ের সঙ্গে শরীরে যে সব উপাদান প্রবেশ করে তা হাড় সতেজ রাখে, মন ভাল রাখে, শরীরের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে, সঙ্গে প্রতিরোধক্ষমতাও বাড়ায়।

নানা ধরনের অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট থাকে চায়ের মধ্যে। অনেকেই বলে থাকেন অ্যান্টি-অক্সিড্যান্টের জন্য গ্রিন টি খাওয়া জরুরি। গ্রিন টি-তে অনেক ধরনের অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট রয়েছে ঠিকই, তবে কালো চায়ে কম নেই। তাই রোজ একটু করে কালো চা খেয়ে শরীর প্রয়োজনীয় অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট পাবে।

সকালে খালি পেটে কালো চা খেলে অনেক সময়ে পেটে একটু অস্বস্তি হয়। কিন্তু তার মানে এমন মোটেই নয় যে এই চা শরীরের ক্ষতি করছে। বরং খাদ্যনালীতে যদি ব্যাক্টিরিয়া জমে থাকে, তা শরীর থেকে তাড়াতে সাহায্য করে চা। কালো চায়ের ব্যাক্টিরিয়ার সঙ্গে লড়ার ক্ষমতা অনেকটা‌ই।

হার্টের অসুখের আশঙ্কাও কমায় কালো চা। সমীক্ষা বলছে, নিয়মিত কালো চা খেলে কোলেস্টেরল, ডায়াবিটিস ও উচ্চ রক্তচাপের রোগীদের হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কমে।