শিমুলিয়া ঘাটে ঘরমুখো মানুষের ঢল

আসন্ন পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটে ঘরমুখো মানুষের ঢল নেমেছে। শুক্রবার সরকারি ছুটি শুরু হওয়ায় বৃহস্পতিবার রাত থেকে শিমুলিয়া ঘাটে যানবাহন ও যাত্রীদের চাপ বাড়তে থাকে।

শুক্রবার সরেজমিনে দেখা যায়, সকাল থেকে নদী পার হওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে ৫ শতাধিক যানবাহন। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে যানবাহন ও যাত্রীর চাপ বাড়ছে। এছাড়া লঞ্চ ও স্পিডবোটেও যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড় দেখা গেছে। একটি ফেরি ঘাটে ফিরলেই ঘরমুখো শত শত মানুষ ওঠার জন্য হুমড়ি খেয়ে পড়ছে।

এদিকে তীব্র গরমে ফেরি পার হওয়ার জন্য ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করছেন ঈদযাত্রায় শামিল হয়ে নাড়ির টানে বাড়ির উদ্দেশে রওনা দেওয়া মানুষ। এই নৌপথে ফেরিতে করে ভারী যানবাহন পারাপার নিষিদ্ধ থাকায় হালকা যানবাহন ও ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে দক্ষিণ-পশ্চিমবঙ্গের ২১টি জেলার মানুষ যাত্রা শুরু করেছেন।

বিআইডব্লিউটিসির শিমুলিয়া ঘাট ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মো. ফয়সাল জানান, শিমুলিয়া-বাংলাবাজার ও শিমুলিয়া-মাঝিকান্দি নৌপথে ১০টি ফেরি দিয়ে যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। শুক্রবার সকাল থেকে পাঁচ শতাধিক যানবাহন ফেরিতে পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে।

বিআইডব্লিউটিএর শিমুলিয়া ঘাটের পরিবহন পরিদর্শক মো. সোলেমান জানান, নৌপথে ১৫৩টি স্পিডবোট ও ৮৫টি লঞ্চ চলাচল করছে। লঞ্চ ও স্পিডবোটে বিপুল সংখ্যক যাত্রী পদ্মা পাড়ি দিচ্ছে।

তিনি আরও জানান, এই রুটে সকাল ৬টা থেকে বিকেল ৬টা পর্যন্ত স্পিডবোট চলাচল করছে। এছাড়া লঞ্চ চলাচল করবে রাত ১০টা পর্যন্ত।

You might also like