শেষ হয়ে গেল নেইমারের বিশ্বকাপ!

বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে জয় পেয়েছে সেলেসাওরা। তবে জয় পেলেও এই ম্যাচে যে দৃশ্যটা ব্রাজিলের সমর্থকরা দেখতে চাননি তা হলো, নেইমারের ইনজুরি। তবে সেটিই দেখতে হলো তাদের প্রথম ম্যাচেই।

ম্যাচের ৭৩ মিনিটে রিচার্লিসনের চোখ ধাঁধানো গোলে উচ্ছাসে মাতে ব্রাজিলের সমর্থকেরা। এর প্রায় ৭ মিনিট পরই চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন নেইমার। মাঠের বাইরে গিয়ে বেঞ্চে বসে কাঁদছিলেন নেইমার। ততক্ষণে ব্রাজিলের সমর্থকেরা যা বোঝার বুঝে নিয়েছেন। সবার মনেই এখন একই প্রশ্ন, কাতার বিশ্বকাপে নেইমারকে আর দেখা যাবে তো!

ব্রাজিল দলের চিকিৎসক রদ্রিগো লাসমার ম্যাচ শেষে গণমাধ্যমকে জানান২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টা নেইমারের পরিস্থিতি মূল্যায়ন করা হবে। তারা অপেক্ষা করবেন। আগেভাগে কোনো মন্তব্য করতে চান না।

অবশ্য কোচ তিতে নেইমারের বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়ার সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়েছেন। তিতে বলেন, ‘নিশ্চিত থাকতে পারেন সে বিশ্বকাপে খেলবে।’ তবে ভয়ের কারণও আছে। ম্যাচের ৬৭ মিনিটে সার্বিয়ান ফুলব্যাক মিলেনকোভিচের কড়া ট্যাকলে নেইমারের ডান পায়ের গোড়ালি মচকে যায়। এর প্রায় ১৩ মিনিট পর ব্রাজিল ফরোয়ার্ডকে মাঠ থেকে তুলে নেন তিতে।

চোট সাধারণমাত্রার হলে শুধু আইসপ্যাক ব্যবহার ও গোড়ালির কিছু ব্যায়াম আর বিশ্রামের মাধ্যমে তিন দিনের মধ্যে সুস্থ হয়ে ওঠা সম্ভব বলে জানান, লাসমার।

২০১৮ বিশ্বকাপে সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে ১-১ গোলে ড্রয়ের ম্যাচেও ডান পায়ের গোড়ালিতে চোট পেয়েছিলেন নেইমার। গতকালের ম্যাচেও ৯বার কড়া ফাউলের শিকার হয়েছেন তিনি। কাতার বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত যা সবচেয়ে বেশি সংখ্যকবার ফাউলের শিকার হওয়ার রেকর্ড। এখন প্রশ্ন হলো, নেইমারের মাঠে ফিরতে কত দিন সময় লাগবে?