শ্রীলঙ্কায় ভায়াবহ বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা ২শ ছাড়িয়েছে

শ্রীলঙ্কায় ভায়াবহ বোমা হামলায় প্রায় দুই শতাধিক প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে। আহত হয়েছে কমপক্ষে চার শতাধিক। রোববার খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের ইস্টার সানডে উদযাপনকালে এসব বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। হতাহতদের মধ্যে বিদেশি পর্যটকও রয়েছেন। ঘটনার পরপরই দেশটিতে সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত কোনো গোষ্ঠী এই হামলার দায় স্বীকার করেনি।

শ্রীলঙ্কায় ভায়াবহ বোমা হামলা
শ্রীলঙ্কায় ভায়াবহ বোমা হামলা

রোবাবর স্থানীয় সময় সকাল পৌনে ৯টার দিকে ইস্টার সানডের প্রার্থনা চলছিল কলম্বোর সেন্ট আন্থোনি’স চার্চ, পশ্চিম উপকূলীয় শহর নেগোম্বোর সেন্ট সেবাস্তিয়ান চার্চ ও ব্যাটিকাকোলার জিওন চার্চে। এসময় হঠাৎ শক্তিশালী বিস্ফোরণে দিকবিদিক ছুটতে শুরু করেন মানুষ।

এরপর একে একে পাঁচ তারকা তিনটি হোটেল ও সর্বশেষ চিড়িয়া খানা এলাকায় ভয়াবহ বিস্ফোরণে নিহত হয় প্রায় ২ শতাধিক মানুষ। আহতদের অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে। পুলিশের ধারণা, এটি আত্মঘাতী হামলা।

হোটেলগুলোতে আহতদের মধ্যে অধিকাংশ বিদেশি পর্যটক বলে জানা গেছে। আহতদের কলম্বোসহ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। এদিকে, শ্রীলংকায় অবস্থানরত দুই বাংলাদেশী পর্যটক নিখোঁজ রয়েছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রপ্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

শ্রীলঙ্কায় ভায়াবহ বোমা হামলার পর সেনা মোতায়েন
শ্রীলঙ্কায় ভায়াবহ বোমা হামলার পর সেনা মোতায়েন

ঘটনার পরপরই শহরে সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। জারি করা হয়েছে সান্ধ্যকালীন কারফিউ। দেশটির নিরাপত্তা কর্মকর্তারা বলেছেন তারা বিস্ফোরণের বিষয়ে তথ্য খতিয়ে দেখছেন। প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহে শিগিগরই জরুরি বৈঠকে বসবেন বলে জানা গেছে।

এ ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছেন বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রীসহ বিশ্ব নেতারা।

 

নিউজ ডেস্ক / বিজয় টিভি