সরিষাবাড়ীতে ইউপি চেয়ারম্যানের ভয়ে বাড়িছাড়া পরিবার

জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার মহাদান ইউনিয়নের হোসনাবাদ গ্রামের শহীদ মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কাদেরের জন্য বীরনিবাসের বরাদ্দ দেয় সরকার। তবে পরিবারটির নিজস্ব কোনো জমি না থাকলেও ঘর নির্মাণের জন্য শহীদ মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কাদেরের ভাইয়ের অংশের জমি দাবি করে বলে অভিযোগ তার ভাইয়ের স্ত্রী-সন্তানদের। পরিবারটি জানায়, তাদের অংশের চেয়ে বেশি জমি বিক্রি করে ফেলেছেন। ফলে তাদের অবশিষ্ট আর কোনো জমি নেই।

এদিকে, গত ৫ ডিসেম্বর এ বিষয়ে ভুক্তভোগী পরিবারটির সাথে আলোচনা করতে এবং ঘর নির্মাণের জায়গা পরিদর্শনে গেলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাদের সামনে মহাদান ইউনিয়ন চেয়ারম্যান একেএম আনিছুর রহমান জুয়েল পরিবারটির বড় ছেলেকে মারধর শুরু করে। এসময় মা কামরুন্নাহারসহ অন্য ছেলেমেয়েরা বাধা দিলে এবং ভিডিও ধারণ করতে গেলে তাদের ওপরও চড়াও হয় চেয়ারম্যান ও তার লোকজন।

পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ ঘটনায় চেয়ারম্যানকে তিরস্কার করে ঘটনাস্থল থেকে ফিরে যান। এরপর থেকে পরিবারটিকে ভয়ভীতি ও প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছে চেয়ারম্যান। তবে মারধরের বিষয়টি অস্বীকার করে ওই পরিবারকে নিরাপত্তা দেয়ার কথা জানালেন ওই অভিযুক্ত ৮নং মহাদান ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এ কে এম আনিছুর রহমান জুয়েল।

এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পাওয়ার কথা উল্লেখ করে সরিষাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ মহব্বত কবীর বলেন, তদন্ত করে দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উপমা ফারিসা বলেন, ইউপি চেয়ারম্যানকে তিরস্কার করা হয়েছে। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।