সেন্সর ছাড়পত্র পেল সিনেমা ‘নদীর জলে শাপলা ভাসে’

গ্রামীণ পটভূমি নিয়ে সিনেমার কাহিনি তৈরি করা হয়েছে। সিনেমার নাম ‘নদীর জলে শাপলা ভাসে’। একটি হৃদয়বিদারক গল্প উঠে এসেছে এতে। অভিনেতা আনিসুর রহমান মিলন ও শিরিন শিলা গেল বছরের ১২ মার্চ থেকে বগুড়ার মহাস্থানগড়ে শুরু করেছিল ছবিটির শুটিং।

মিলন-শিরিন শিলা জুটির প্রথম সিনেমা ‘নদীর জলে শাপলা ভাসে’। শিরিন শিলা ছবির গল্পে গ্রামের সহজ-সরল মাঝির বউ। তারামন বানু তাঁর চরিত্রের নাম। এ ধরনের চরিত্রে তিনি আগে অভিনয় করেননি।

এতে মিলন অভিনয় করেছেন নায়েব চরিত্রে। যিনি একজন মাঝি। গ্রামের খালে নৌকা চালান। গ্রামীণ পটভূমিতে বোনা হয়েছে সিনেমাটির গল্প। ‘নদীর জলে শাপলা ভাসে’ দিয়ে প্রথমবারের মতো মাঝির চরিত্রে অভিনয় করেছেন মিলন।

নতুন খবর হল, এবার ‘নদীর জলে শাপলা ভাসে’ ছবিটি মুক্তির অনুমতি পেল। গেল ২৩ জানুয়ারি বাংলাদেশ ফিল্ম সেন্সর বোর্ড থেকে বিনাকর্তনে ছাড়পত্র পেয়েছে সিনেমাটি। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিনেমার নির্মাতা মেহেদী হাসান।

 ‘নদীর জলে শাপলা ভাসে’ সিনেমার গল্প ও চিত্রনাট্য লিখেছেন মশিউর রহমান। আনিসুর রহমান মিলন ও শিরিন শিলা ছাড়াও এ সিনেমায় আরও অভিনয় করছেন মাহমুদুল ইসলাম মিঠু, রেবেকা রউফ, সুব্রতসহ অনেকে।

নির্মাতা জানিয়েছেন, করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে যে কোনো তারিখে হলে আসবে সিনেমাটি। গতানুগতিক গল্পের বাইরে ব্যতিক্রম মৌলিক গল্পের সিনেমা হতে যাচ্ছে এটি।

%d bloggers like this: