হানিমুনে গিয়ে প্রেমিকের সঙ্গে পালানো সেই নববধূ গ্রেফতার

১৭

হানিমুনে গিয়ে স্বামীকে মারধর করে প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়ে যাওয়া সেই নববধূকে প্রেমিকসহ গ্রেফতার করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে তাদের গ্রেপ্তার করে তালতলী থানা পুলিশ।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তালতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাখওয়াত হোসেন তপু। তিনি বলেন, কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতে ঘুরতে গিয়ে স্বামীকে মারধর করে প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়ে যাওয়া নববধূকে প্রেমিকসহ গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ঘটনায় মহিপুর থানায় স্বামী মনিরুল বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন।

এদিন দুপুরে তালতলীর নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নের আগাপাড়া গ্রামে নোমানের ভগ্নিপতি হাসান প্যাদার বাড়ি থেকে লুলি ও তার প্রেমিক নোমানকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে তাদের মহিপুর থানায় হস্তান্তর করা হয়।

জানা যায়, ২০ সেপ্টেম্বর স্ত্রীকে নিয়ে হানিমুনে যান বরগুনার মনিরুল ইসলাম (৩৫) নামে এক প্রবাসী। একই দিন রাত ১১টার দিকে স্ত্রী নুরে জান্নাত লুলি ও তার প্রেমিক নোমান লোকজন নিয়ে মনিরুল ইসলামকে মারধর করেন। এরপর প্রেমিক নোমানের সঙ্গে পালিয়ে যান নুরে জান্নাত। এ ঘটনায় পটুয়াখালীর মহিপুর থানায় মামলা করেন মনির। প্রেমিক নোমান (২৪) বরগুনার তালতলীর মৌপাড়া এলাকার এলাকার আলাল হাওলাদারের ছেলে।

পটুয়াখালীর মহিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার আবুল খায়ের বলেন, সোমবার দুপুরে ওই নববধূ ও তার প্রেমিককে গ্রেপ্তারের পর আমাদের কাছে হস্তান্তর করে তালতলী থানা পুলিশ।