হোলি আর্টিজানে হামলার মাধ্যমে জঙ্গিরা চেষ্টা করেছিল বাংলাদেশের চরিত্রহননের

রাজধানীর গুলশানে হোলি আর্টিজান বেকারিতে ভয়াবহ জঙ্গি হামলা মামলার রায় ঘোষণা করা হয়েছে আজ (বুধবার দুপুরে। রায়ে আট আসামির মধ্যে সাত আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় এক আসামিকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে।

ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মজিবর রহমান আজ দুপুরে এ রায় ঘোষণা করেন।

রায়ের পর্যবেক্ষণে বিচারক মজিবর রহমান বলেন, ‘কলঙ্কজনক এ হামলার মধ্য দিয়ে জঙ্গিরা অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের চরিত্রহননের চেষ্টা করেছিল। যারা এ ধরনের হামলা চালিয়ে বর্বরতার চূড়ান্ত বহিঃপ্রকাশ ঘটিয়েছে তাদের প্রতি অনুকম্পা জানানোর সুযোগ নেই।’

আদালত বলেন, ‘হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গিরা নিষ্ঠুর, নারকীয় ও দানবীয় হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছিল। তথাকথিত জিহাদের নামে নৃশংসতার চূড়ান্ত বহিঃপ্রকাশ ঘটায় তারা। জঙ্গিদের লক্ষ্য ছিল, এই হামলার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে আইএসের অস্তিত্ব জানান দেওয়া। জিহাদ কায়েম করে জননিরাপত্তা বিঘ্ন করার চেষ্টা করেছিল জঙ্গিরা।’

বহুল আলোচিত এ মামলার রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে বুধবার সকাল থেকে আদালতপাড়াসহ রাজধানী ঢাকা ও সারাদেশে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়। রায়সাহেব বাজার মোড় থেকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত পুরো সড়কে বাড়তি নিরাপত্তা বলয় তৈরি করেছিল পুলিশ। সাদা পোশাকেও তৎপর ছিলেন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা।

অনলাইন নিউজ ডেস্ক/বিজয় টিভি

You might also like